শফিকুল ইসলাম: জয়পুরহাট পৌর এলাকার কিনাপাড়া মহল্লায় সন্ত্রাসী দিয়ে জোরপুর্বক জমি দখল করে স্থাপনা নির্মাণ করছে প্রতিবেশী ইসমাইল। এ ঘটনায় ৯৯৯ এ কল দিয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে কাজ বন্ধ করার জন্য বললেও কাজ বন্ধ না করে সন্ত্রাসীদের দিয়ে হুমকী দেওয়া হচ্ছে।

সন্ত্রাসীদের ভয়ে এখন মানবেতর জীবনযাপন করছে ভুক্তভুগী পরিবার। নিরুপায় হয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন গৃহবধু আরিফা আক্তার। মঙ্গলবার দুপুরে জয়পুরহাট প্রেসক্লাবে উপস্থিত হয়ে লিখিত বক্তব্যে আরিফা আক্তার জানান, দীর্ঘ ৫০ বছর ধরে তারা নিজ দখলীয় জমিতে ব্ধসঢ়;সবাস করে আসছে। হঠাৎ করে গত ১৮ মার্চ প্রতিবেশী ইসমাইল হোসেনের ছেলে টারজান চিহ্নিত সন্ত্রাসী লাভলু, ভুট্টু, শাহিনুর, হাসানকে নিয়ে ১০/১২ জন সন্ত্রাসীসহ তাদের জমিতে যায় এবং ২ শতাংশ জায়গা তারা পাবে মর্মে দাবী করে বসতবাড়ীর ফাকা অংশ দখল করে নিয়ে তাতে ইট দিয়ে সীমানা প্রাচীর নির্মানসহ বিভিন্ন স্থাপনা নির্মান শুরু করে।

এ ব্যাপারে জয়পুরহাট পৌরসভায় অভিযোগ দিলে পৌরসভা হতে একাধিকবার নোটিশ করলেও তারা উপস্থিত হয়নি। বরং ২১ মার্চ তারা উল্টো জয়পুরহাট অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে ১৩ জনকে আসামী করে মামলা করেন। মামলা নং-৭৪ পি/২২। বর্তমানে ঐ জায়গায় এলাকার চিহ্নিত সাজাপ্রাপ্ত সন্ত্রাসী আসামী দেওয়ান বেদারুল ইসলাম বেদিন নিজে উপস্থিত থেকে বিভিন্ন স্থাপনা নির্মান তদারকী করছেন। বর্তমানে পরিবার পরিজন নিয়ে আমরা চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। পরিবারটি জেলার প্রশাসনের নিকট সুষ্ঠু বিচার চেয়ে আবেদন করছেন।

সংবাদ সম্মেলনে আরিফা আক্তারের সাথে ছিলেন শাশুড়ী কমেলা, মামী বেবী, মামা ইউসুফ, আজিজার ও তোজাম্মল।

Previous articleসম্মেলন ছাড়াই ঈশ্বরদীতে ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষণার অভিযোগ
Next articleচাঁপাইনবাবগঞ্জে পদ্মায় গোসল করতে নেমে কিশোরীর মৃত্যু
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।