স্বপন কুমার কুন্ডু: ঈশ্বরদীতে পুকুর থেকে মীর সাইদুল ইসলাম সবুজ (৩৭) এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করেছে হয়েছে। নিহত সবুজ শহরের হাসপাতাল রোড এলাকার মৃত মীর আব্দুর রহিম মান্নানের ছেলে ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মীর জহুরুল হক পুনোর ছোট ভাই। বুধবার (১৩ এপ্রিল) সকাল ১১ টায় ঈশ্বরদী শহরের রেলগেট সংলগ্ন পাতিবিল (তিনকোণা) পুকুরে ভাসমান লাশ দেখে পথচারীরা পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করেছে।

নিহতের ভাই মীর জহুরুল হক পুনো জানান, ২০০৩ সাল হতে সবুজ মানসিকভাবে ভারসাম্যহীন ছিল। সবুজ বিয়ে করলেও স্ত্রী ডিভোর্স দিয়ে অন্যত্র সংসার পেতেছে। তার একটি পুত্র সন্তান পাবনা হাফিজিয়া মাদ্রাসায় লেখাপড়া করে। সবুজ আমার কাছেই ছিল, তবে প্রায় দেড় মাস বাড়িতে আসেনি। শুনেছি বোনদের বাড়িতে বাড়িতে থাকতো। তাছাড়া সে সাঁতার জানতো না। পুকুরে গোসল করতে গিয়ে ডুবে মারা যেতে পারে।

সবুজ দীর্ঘদিন ধরে মাদকাসক্ত ছিলো এবং হেরোইন সেবন করতো বলে এলাকাবাসীরা জানিয়েছেন। যেকারণে স্ত্রী ডিভোর্স দিয়ে অন্যত্র বিয়ে করে।

ঈশ্বরদী থানার অফিসার ইনচার্জ আসাদুজ্জামান জানান, মৃত্যুর কারণ এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। ওই ব্যক্তি লুঙ্গি রেখে গামছা পড়ে পুকুরে নামে। সাঁতার না জানলে পুকুরে নামলো কেন ? সুরতহালে মরদেহের শরীরে কোন আঘাতের চিহ্ণ দেখা যায়নি। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য পাবনা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হবে বলে জানান তিনি।

Previous articleচাটখিলে অনৈতিক কাজের অভিযোগে আবাসিক হোটেল থেকে নারীসহ ৪ জন গ্রেফতার
Next articleকিছু লোক ধর্মের সাথে সংস্কৃতির বিরোধ সৃষ্টি করতে চায়: প্রধানমন্ত্রী
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।