বাংলাদেশ প্রতিবেদক: মেহেন্দিগঞ্জে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে বিয়ে বাড়ির অতিথিসহ কমপক্ষে ৮জন কুপিয়ে-পিটিয়ে জখম করা হয়েছে। গতকাল রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে মেহেন্দিগঞ্জের কাজিরহাট থানার বিদ্যানন্দপুর ইউনিয়নের চিলমারী গ্রামের নান্নু হাওলাদারের বাড়িতে এই ঘটনা ঘটে।

নান্নু হাওলাদারের নববিবাহিত ছেলের স্ত্রীর সাথে আসা অতিথিকে মারধরের বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করতে গেলে প্রতিপক্ষের লোকজন হামলা চালায়। চিলমারী গ্রামের গণি মাঝির ছেলে কাওসার মাঝির নেতৃত্বে এই হামলা চালানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন আহতরা।

জানা গেছে, গত শুক্রবার নান্নু হাওলাদারের ছেলে সুমন হাওলাদারের বিয়ে হয়। ওই সময় নববধুর চাচাতো ভাই সাজ্জাদ তাদের বাড়িতে বেড়াতে আসেন। রোববার সকাল ৯টার দিকে সাজ্জাদ বাড়ির সামনে বের হলে পূর্বশত্রুতার জেরধরে ওই এলাকার আহম্মদ মাঝি ও মোহাম্মদ মাঝি মারধর করে। এবিষয়ে সুমন হাওলাদার জিজ্ঞাসাবাদ করতে গেলে আহম্মদ ও মোহাম্মদ মাঝির বড়ভাই কাওসার মাঝি ক্ষিপ্ত হয়ে সুমনকে কুপিয়ে-পিটিয়ে জখম করেন। সুমনের বাবা নান্নু হাওলাদার, চাচা টেনু হাওলাদার ও অন্যান্যরা তাকে রক্ষা করতে গেলে সবাইকে কুপিয়ে-পিটিয়ে জখম করে হামলাকারীরা। এতে সুমন, নান্নু হাওলাদার, টেনু হাওলাদার, সোহেল হাওলাদার, মিজান মৃধাসহ কমপক্ষে ৮জন আহত হয়।

আহতদের ডাকচিৎকারে পার্শ্ববর্তী বাড়ির লোকজন এসে তাদের উদ্ধার করে মুলাদী হাসপাতালে ভর্তি করেন। কাজিরহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জুবায়ের আহমেদ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। আহতদের লিখিত অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Previous articleনোয়াখালীতে জামায়াতের ৪৫ নেতাকর্মীকে কারাগারে প্রেরণ
Next articleকলাপাড়ায় পুলিশের কাছে স্বেচ্ছায় আত্মসমর্পণ করল মাদক ব্যবসায়ী
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।