রতন কুমার খাঁ: জয়পুরহাটের ক্ষেতলাল ও কালাই উপজেলায় দুই মহিলার মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার ভোর রাতে তাদের মরদেহ দুটি উদ্ধার করা হয়েছে।

ক্ষেতলাল থানা সুত্রে জানা যায়, বগুড়া জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার সৈয়দ দামগড় গ্রামের মৃত আলম মিস্ত্রির পুত্র উজ্জল হোসেনের সাথে জয়পুরহাট জেলার ক্ষেতলার উপজেলার শিবপুর গ্রামের মৃত বেলায়েত হোসেনের কন্যা বিউটি বিবি(১৯) এর সাথে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। প্রেমের এক পর্যায়ে গত ২১ এপ্রিল বিউটি বিবি বিয়ের জন্য ক্ষেতলালে এসে উজ্জলকে বিয়ের জন্য চাপ দেয়। এক পর্যায়ে তাদের মাঝে ঝগড়া বিবাদে বিউটি বিবিকে শ^াস রোধ করে হত্যা করে বাড়ির মধ্যে পায়খানার সেফটি ট্যাঙ্কে ভিতরে লাশ লুকিয়ে রাখে। এদিকে বিউটি বিবি বাড়িতে না ফেরাই তার ভাইসহ অন্যান্যরা খোজাখুজি করে। কিন্ত তাকে না খুঁজে পেয়ে শিবগঞ্জ থানাকে জানালে বিউটির মোবাইল ফোন ট্র্যাকিং করে ক্ষেতলার থানার পুলিশের সহযোগিতায় শুক্রবার উজ্জল হেসেনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করে বিউটিকে হত্যার ঘটনা উদঘাটন করে।

পুলিশ ৩৭ দিন পর শনিবার সকালে বিউটির লাশ উজ্জলের বাড়ির সেফটি ট্যাংকি থেকে উদ্ধার করে। লাশের ময়না তদন্তের জন্য জয়পুরহাট আধুনিক জেলা হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় ক্ষেতলাল থানায় হত্যা মামলা করা হয়েছে।

অপরদিকে জয়পুরহাট জেলার কালাই উপজেলার দুধাইল- নয়াপাড়া গ্রামের শিপন আক্তার (৩৫) নামের এক গৃহবধূর জবাই করা মরদেহ শনিবার ভোর রাতে তার ঘর থেকে উদ্ধার করেছে কালাই থানা পুলিশ। শিপন ওই গ্রামের তোজাম্মেল হোসেনের স্ত্রী। পরিবারের দাবি, জমি নিয়ে শত্রুতার জের ধরে তাকে হত্যা করা হয়েছে। তার মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য জেলা হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ বিষয়ে কালাই থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

Previous articleবিএনপি নৈরাজ্য করলে আওয়ামী লীগ প্রতিরোধ করবে: তথ্যমন্ত্রী
Next articleজয়পুরহাটে মাদক সেবনের দায়ে ৩ জনের জেল-জরিমানা
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।