জয়নাল আবেদীন: রংপুরে এক পুলিশ কর্মকর্তার ছাদবাগান এখন নগরির অইেশ মানুষের নজর কেড়েছে । ছাদবাগানটি অনেকের কাছেই এখন অনুপ্রেরণার উৎস। আখ সহ বিভিন্ন ফল-ফুল, ড্রাগন ফল ,শাক-সবজি চাষ করে এবং মাছ উৎপাদন করে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন ওই কর্মকর্তা। এছাড়া তিনি ছাদে খেজুর গাছ রোপন করেছেন।

রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের সহকারি পুলিশ কমিশনার আলতাফ হোসেন নগরীর ২৭ নং ওয়ার্ডের আলমনগর খামার পাড়া এলাকায় ৪ তলা বাড়ির ছাদে হরেক রকমের গাছ-গাছালি অনেকের দৃষ্টি আর্কষণ করতে সক্ষম হয়েছে। তার বাগানে প্রায় ১০০ প্রজাতির শাক-সবজিসহ ফলদ, ওষুধি গাছের সমারোহে সবুজ হয়ে উঠেছে ছাদ। তাঁর ছাদ বাগানে গিয়ে প্রথমেই দেখা মেলে আখ। মাটির বস্তায় তিনি আখ চাষ করেছেন। একটি বস্তায় ৫-৮ টি আখ ফলেছে। তিনি বছরে দুই বার ছাদ বাগানে আখ চাষ করেছেন। বাগানের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করছে টবের পানিতে শাপলা,পদ্ম ফুল ও বিলেতি কচুরি পানা। এছাড়া ফল হিসেবে তিনি ড্রাগন, মাল্টা, পেয়ারা , আনারস, লেবু, ডালিম ইত্যাদি চাষ করেছেন।

সবজির মধ্যে করলা, বেগুন, কাঁচামরিচ, মিষ্টি আলুসহ কয়েক পদ রয়েছে। এছাড়া ৭ প্রকারের শাক তাঁর ছাদ বাগানে শোভা পাচ্ছে। ওষুধি ও মশলা জাতীয় গাছের মধ্যে রয়েছে তেজপাতা, আদা, হলুদ, সজনা, পুদিনা ইত্যাদি। দেশি- বিদেশী ফুলের মিষ্টি গন্ধে ছাদ বাগনটি আরো বিমহিত করে তুলেছে। তাঁর বাগানে গেলে সতিক্যারে একটি প্রাকৃতিক পরিবেশ লক্ষ্য করা যায়। আশ-পাশের অনেকেই তার ছাদ বাগান দেখতে আসেন। ছাদ বাগানের উৎপাদিত ফল-সবজি পরিবারের প্রয়োজন মিটিয়ে আত্মীয়-স্বজনকেও তিনি দিচ্ছেন।

পুলিশ কর্মকর্তা আলতাব হোসেন পুত্র পুত্রবধু এবং কন্যা তিনজনই ডাক্তার

পুলিশ কর্মকর্তা আলতাফ হোসেন বলেন, বেসরকারি টিভি চ্যানেলে কৃষি বিষয়ক অনুষ্ঠান দেখে তিনি ছাদ বাগান করতে উদ্বুদ্ধ হয়েছেন। তিন বছর আগে তিনি এই ছাদ বাগানের যাত্রা শুরু করেন। তার মা- স্ত্রী- সন্তানরা তার এই বাগান গড়তে সহয়োগিতা ও উৎসাহ যুগিয়েছেন। বর্তমানে বিদেশি ফুলসহ তার বাগানে সবুজ প্রকৃতির অনেক কিছুই রয়েছে। যা দেখে মুগ্ধ না হয়ে উপায় নেই। আলতাফ হোসেন রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কোতোয়ালি জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন। একমাত্র ছেলে ডাঃ আবু মোঃ নাহিদ হোসেন আপন এমবিবিএস পাশ করে একটি বেসকারি হাসপাতালে কর্মরত রয়েছেন। ছেলে পত্নী ডাঃ নুরে জান্নাত আকতার, (এমবিবিএস) তিনিও একটি বেসরকারি হসপিটালে কর্মরত আছেন। একমাত্র মেয়ে ডাঃ আফসানা হোসেন অমি তিনিও এমবিবিএস পাশ করে রংপুর প্রাইম মেডিকেল হাসপাতালে কর্মরত রয়েছেন। তার স্ত্রী নাজনিন নাজু কলেজের প্রভাষক। তিনি একজন সার্থক সন্তান, সার্থক পিতা, সার্থক স্বামী এবং সার্থক শ্বশুর ।

ব্যক্তি জীবনের সফল এই মানুষটির ছাদ বাগান সত্যিকার অর্থে আরও শতমানুষের অনুপ্রেরণা যোগাবে তা বলার অপেক্ষা রাখেনা ।

Previous articleসরকারকে পদত্যাগ করে তত্ত্বাবধায়ক সরকারকে ক্ষমতা বুঝিয়ে নির্বাচন দিতে হবে: মির্জা ফখরুল
Next articleজয়পুরহাটে শিশু ধর্ষণের অভিযোগে ২ কিশোর গ্রেফতার
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।