বাংলাদেশ প্রতিবেদক: পাবনার সাঁথিয়া উপজেলার কাশিনাথপুরে এক নারীকে ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যার ঘটনায় টুটুল নামের একজনকে ফাঁসির আদেশ দিয়েছে আদালত। একইসাথে আসামিকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানার আদেশ দেয়া হয়েছে।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি টুটুল চরপাইকারহাটি গ্রামের আতাহার মল্লিকের ছেলে।

রোববার বেলা সাড়ে ১১টায় পাবনার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মিজানুর রহমান এ রায় ঘোষণা করেন।

রায়ের সময় আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন। পরে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিকে কারাগারে পাঠানো হয়। ভিকটিম নারী একই গ্রামের আরদোশ মল্লিকের স্ত্রী।

মামলার এজাহার থেকে জানা গেছে, ভিকটিম নারী বাড়ির পাশে লাকড়ি কুড়ানো ও জমি দেখতে যান। এ সময় টুটুল তাকে একা পেয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে। কিন্তু ওই নারীর জবরদস্তি কারণে ব্যর্থ হয়ে তাকে শাড়ি পেঁচিয়ে শ্বাসরোধে হত্যা করে রাত ৩টার দিকে ধান ক্ষেতে লাশ লুকিয়ে রাখে।

ঘটনার ছয় দিন পর সন্দেহজনকভাবে টুটুলকে আটক করলে তিনি হত্যার কথা স্বীকার করেন এবং লুকানো লাশ বের করে দেন।

এ ঘটনায় ভিকটিমের মেয়ে সাঁথিয়া থানায় টুটুলের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। তদন্ত শেষে ২০১৮ সালের ৩১ জানুয়ারি আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশ। দীর্ঘ আইনি প্রক্রিয়া শেষে বিচারক এই রায় ঘোষণা করেন।

রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন মামলার রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ট্রাইবুনালের বিশেষ পিপি অ্যাডভোকেট খন্দকার আব্দুর রকিব।

এদিকে আসামি পক্ষের আইনজীবী চৌধুরী রাজিয়া সুলতানা টুলটুলি এই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করবেন বলে জানিয়েছেন।

Previous articleমেঘ দেখলেই আঁতকে উঠে রামনাবাদ নদী পাড়ের মানুষগুলো
Next articleফিরেছে পাটের সুদিন, দাম পেয়ে খুশি চাষিরা
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।