পাভেল মিয়া: কুড়িগ্রামের করে আসার অভিযোগে অভিযোগ দায়েরের ২ ঘন্টার মধ্যে গ্রেফতার করেছে রৌমারি থানা পুলিশ।

বাড়িতে থেকে কেউ না থাকলে সেই সুযোগে চলে আসতো বাবু মিয়া এবং কলা কৌশলে প্রতিবন্ধী শাপলা (ছদ্মনাম) কে (১৬) ধর্ষণ করতো। প্রায় ১ বছর থেকে এভাবে তাকে ধর্ষণ করে আসছে বলে জানায় ভুক্তভোগীর বাবা চান মিয়া।

এর পরিপ্রেক্ষিতে ৪ সেপ্টেম্বর রবিবার দিবাগত রাতে প্রতিবন্ধী মেয়ের বাবা তার মেয়ে শারিরীক ও বাকপ্রতিবন্ধী শাপলা (ছদ্মনাম) (১৬) সহ থানায় এসে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযুক্ত ধর্ষক বাবু মিয়া প্রতিবন্ধীর প্রতিবেশী ও জেলার রৌমারী উপজেলার কাইম টাপুর চরের মৃত নূর হোসেনের পুত্র।

অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, গত ০২ সেপ্টেম্বর (শুক্রবার) সকালে ১০ টার দিকে প্রতিবন্ধী মেয়েকে নাস্তা খাইয়ে তার ঘরের উত্তর পাশের রুমে খাটের উপর শুইয়ে দিয়ে তার চাচা শশুর এর বাড়িতে ধারের টাকা দেওয়ার জন্য যান।

বেলা আনুমানিক পৌনে এগারোটার দিকে অভিযোগকারিণীর বাড়িতে এসে তার মেয়ের রুমের দরজার সামনে গিয়ে দরজা ধাক্কা দিতেই দেখেন যে, প্রতিবেশী যুবক মোঃ বাবু মিয়া(২৮), তার মেয়েকে ঘরের মেঝেতে শুইয়ে তার মেয়ের পড়নের পায়জামা খুলে তার প্রতিবন্ধী মেয়েকে ধর্ষণ করছে।

এসময় অভিযোগ কারিনী চিৎকার দিলে ধর্ষণকারী বাবু মিয়া দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করলে অভিযোগ কারিনী তাকে জাপটে ধরলে ধর্ষনকারী বাবু মিয়া অভিযোগ কারিনীকে ধাক্কা দিয়ে মাটিতে ফেলে পালিয়ে যায়। অভিযোগ আরো বলা হয়, ধর্ষণকারী বাবু মিয়া আনুমানিক ১ বছর পূর্ব হতে তার মেয়েকে বিভিন্ন সময়ে ও সুযোগে রাত্রি বেলায় সংগোপনে তার মেয়ের রুমে প্রবেশ করে তার মেয়েকে ধর্ষণ করে আসছে।

অভিযোগ কারিনীর অভিযোগের ভিত্তিতে রৌমারী থানায় মামলা দায়ের করার ০২ ঘন্টার মধ্যে রৌমারী থানা পুলিশ অভিযান পরিচালনা করে আসামীকে রৌমারীর কাইম টাপুর চর এলাকা হতে গ্রেফতার করা হয়।

রৌমারী থানার অফিসার ইনচার্জ রুপ কুমার সরকার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বাদির অভিযোগের ভিত্তিতে রবিবার রাত প্রায় পৌনে ২টার দিকে অপরাধীকে টাপুর চর থেকে আটক করা হয় এবং নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে (রৌমারী থানার মামলা নং-২) মামলার ভিত্তিতে আদালতের মাধ্যমে আসামিকে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কুড়িগ্রাম জেলা পুলিশ সূত্রে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলা হয়েছে, সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয়ে একটি সুখী, সমৃদ্ধ ও শান্তিপূর্ন সমাজের লক্ষ্যে সম্মানিত নাগরিকদের টেকসই নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে আইনের আলোকে দিবারাত্রি কঠোর পরিশ্রম করে যাচ্ছে বাংলাদেশ পুলিশ। শুধু সংঘটিত অপরাধ দমনই নয়, নিয়ন্ত্রন, তদন্ত সহ অপরাধ নিবারনে সার্বক্ষণিক ভাবে কাজ করে যাচ্ছে কুড়িগ্রাম জেলা পুলিশ। এভাবে আমাদের সেবা অব্যাহত থাকবে

Previous articleপাঁচবিবিতে ব্রীজ ও স্কুল ভবনের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন
Next articleসিরাজদিখানে করোনায় ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির পক্ষ থেকে নগদ অর্থ বিতরণ
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।