এস এম শফিকুল ইসলাম: জয়পুরহাট সদর উপজেলার ভাদসা ইউনিয়নের বড় মাঝিপাডা গ্রামে থেকে মোস্তাকিম হোসেন (২০) নামে এক যুবকের ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার সকাল সাড়ে ১০ টায় ওই গ্রামে মোস্তাকিমের শয়ন কক্ষ থেকে ওড়না দিয়ে ফাঁস দেওয়া অবস্থায় তার ঝুলন্ত করা হয়। নিহত মোস্তাকিম একই গ্রামের আব্দুল হামিদ ছেলে। এ ঘটনায় প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ মোস্তাকিমের স্ত্রী রিয়া পারভীন (১৮)কেও আটক করেছে পুলিশ।

নিহতের বাবা আব্দুল হামিদ, ভগ্নিপতি ফেরদৌস হোসেনসহ স্বজনরা জানান, চলতি বছরের কুরবানী ঈদের দুই দিন আগে পারিবারিকভাবে মোস্তাকিম হোসেনের সাথে নওগাঁর ধামুরহাট উপজেলার মানপুর গ্রামের বাবু সরদারের মেয়ে রিয়া পারভীনের বিয়ে হয়। বিয়ের ক’দিন পর মোস্তাকিমের বাড়ি থেকে বাবার বাড়ি ফিরে গিয়ে পারিবারিক কলহের জেরে দীর্ঘ দিন বাবার বাড়িতেই থাকছিলেন। উভয় পক্ষের মধ্যে মিমাংসার পর গতকাল শুক্রবার রিয়া বাবার বাড়ি থেকে মোস্তাকিমের বাড়ি ফিরে আসেন। ওই দিন রাতে খাওয়ার পর মোস্তাকিম ও রিয়া একই ঘরে শুয়ে পরেন। এ অবস্থায় রাত ১টার দিকে রিয়া তার শ্বশুর বাড়ির লোকজনকে ঘুম থেকে ডেকে তুলে বলেন যে, তাকে ঘুমে রেখে মোস্তাকিম একই ঘরের বর্গার সাথে ওড়না লাগিয়ে সেখানে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে।

খবর পেয়ে পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য জয়পুরহাট জেলা আধুনিক হাসপাতালে প্রেরন করেছে। একই ঘরে স্ত্রীকে ঘুমিয়ে রেখে স্বামীর আত্মহত্যার বিষয়টি সন্দেহ জনক হওয়ায় প্রাাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মোস্তাকিমের স্ত্রী রিয়াকে আটক করা হয়েছে।

জয়পুরহাট সদর থানার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সিরাজুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ঘটনাটি হত্যা না আত্মহত্যা এ বিষয়ে পুলিশ তদন্ত করছে। ময়নাতদন্তের পর জানা যাবে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ ।

Previous articleভোলায় পুলিশি অভিযানে ২ জুয়াড়ি আটক, তাস ও নগদ টাকা উদ্ধার
Next articleমৎস্য চাষে ব্যাংক ঋণ প্রদানে অনিয়ম থাকবে না: মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ সচিব
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।