বাংলাদেশ প্রতিবেদক: পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে কহিনুর বেগম (৬৫) নামের এক বৃদ্ধাকে কুপিয়ে জখম করেছে প্রতিপক্ষরা। এসময় হামলা চালিয়ে আহত করা হয়েছে তার ছেলে বশির(৪০) ও ছেলের স্ত্রী শাহিনুর বেগম (৩৫)কে। বুধবার দুপুরে উপজেলার ধুলাস্বার ইউনিয়নের বেতকাটা গ্রামে এঘটনা ঘটে।

বর্তমানে কহিনুর যন্ত্রনাকাতর শরীর নিয়ে হাসপাতালের বিছানায় কাতরাচ্ছেন। কহিনুরের স্বামী বারেক হাওলাদার জানান, দীর্ঘদিন ধরে তাদের সঙ্গে বেতকাটা গ্রামের সোনাপাড়া মৌজার ২৮৩৪ দাগের ৭.০১ একর জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিলো একই এলাকার আমির গাজী গংদের সঙ্গে। বিষয়টি নিয়ে স্থানীয়ভাবে বেশ কয়েকবার শালিস বৈঠক বসিয়ে কোন সুরাহা পাননি তিনি। পরে তিনি হাইকোর্টে একটি মামলা দায়ের করেছেন। হাইকোর্ট ওই জমিতে স্থাপনা নির্মানসহ কৃষি কাজের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে। কিন্তু বুধবার দুপুরে ওই জমিতে চাষাবাদ শুরু করে আমির গাজী গংরা। এসময় তাদের বাঁধা দিলে বসার গাজী, সুলতান গাজী, নুর জামাল গাজী ও সোনামেয়া হাওলাদার তাদের উপর অতর্কিত হামলা চালায়। ধারালো অস্ত্র দিয়ে মাথায় কুপিয়ে জখম করা হয় বৃদ্ধা কহিনুর বেগমকে। আহত করা হয় তার ছেলে ও ছেলের স্ত্রীকে। পরে স্থানীয়রা কহিনুরকে উদ্ধার করে কলাপাড়া হাসপাতালে ভর্তি করে।

কাঁদো কাঁদো কন্ঠে বৃদ্ধা কহিনুর বেগম জানান, তারা আমার ছেলেকে মারধর শুরু করে। এসময় আমি বাঁধা দিলে আমার মাথায় সোনামেয়া ধরালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে। আমি তো জমি সংক্রান্ত কোন কিছুই বুঝি। এই বৃদ্ধ বয়সেও আমাকে মারধর করা হয়েছে। এবিষয়ে আমির গাজি জানান, মারধর তো দুরের কথা গতকাল তাদের সঙ্গে আমাদের কোন সাক্ষাতই হয়নি। উল্টো বারেক হাওলাদার তাদের মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়নি করছেন বলে অভিযোগ করেন।

মহিপুর থানার ওসি তদন্ত হাফিজুর রহমান জানান, বিষয়টি আমাকে বারেক হাওলাদার অবগত করেছে। তাকে থানা অভিযোগ দায়েরের জন্য বলা হয়েছে। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হইবে।

Previous articleরংপুরে ব্যাডমিন্টন চূড়ান্ত পর্বের খেলা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠান
Next articleসুন্দরগঞ্জে ইউপি সদস্য গ্রেপ্তার
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।