বাংলাদেশ প্রতিবেদক: মুলাদীতে স্ত্রী রহিমা বেগমের ঝাড়ুপেটা খেয়ে স্বামী আবেদ শরীফের হাত-পা ভেঙে দিয়েছেন সন্ত্রাসীরা। এই ঘটনায় কমপক্ষে ৪ জন আহত হয়েছে। গত বুধবার বিকেলে উপজেলার সফিপুর ইউনিয়নের বালিয়াতলী গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। বালিয়াতলী গ্রামের মজনু ওরফে জসিম মীরের ছেলে সোহাগ ও সজিব মীরের নেতৃত্বে ৭/৮জন সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে ওই গ্রামের নাদের শরীফের ছেলে আবেদ শরীফের হাত-পা ভেঙে দেয় বলে দাবি করেছেন আহতরা।

ওই সময় আবেদ শরীফের স্ত্রী রহিমা বেগমসহ ৪জনকে পিটিয়ে আহত করা হয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে। রহিমা বেগম জানান, মজনু ওরফে জসিম মীরের সাথে আবেদ শরীফের জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিলো। কয়েক দিন আগে জসিম মীর বিরোধপূর্ণ জমির একটি গাছ বিক্রি করে দেন।

বুধবার দুপুরে ক্রেতারা গাছ কাটতে এলে আবেদ শরীফ বাধা দেন এবং জমি বিরোধের নিস্পত্তি হওয়ার আগে গাছ কাটতে নিষেধ করেন। এতে জসিম মীর ও তার ছেলেরা ক্ষিপ্ত হন এবং বিকেলে ৭/৮ জন লোক ও দেশিয় অস্ত্র নিয়ে বাড়িতে হামলা চালায়। হামলাকারীরা হাতুড়ি দিয়ে আবেদ শরীফের হাত-পা ভেঙে মারাত্মক আহত করেন।

আবেদ শরীফের ডাকচিৎকার শুনে স্ত্রী রহিমা বেগম ও অন্যন্যারা তাকে রক্ষা করতে গেলে হামলাকারীরা তাদেরকে পিটিয়ে আহত করেন। পরে স্থানীয়রা লোকজন এসে আহতদের উদ্ধার করে পার্শ্ববর্তী গোসাইর হাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে শরীয়তপুর জেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়। আবেদ শরীফের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় পরে তাকে ঢাকার জাতীয় অর্থোপেডিক (পঙ্গু) হাসপাতালে নিয়ে যান স্বজনরা।

ঘটনার পর থেকে আহতদের নিয়ে চিকিৎসায় ব্যস্ত থাকায় থানায় অভিযোগ দিতে পারেননি বলে জানিয়েছেন আবেদ শরীফের স্ত্রী রহিমা বেগম। এব্যাপারে মজনু ওরফে জসিম মীর ঘটনার সত্যতা স্বীকার বলে বলেন, ‘গাছের বিরোধ ধরে আবেদ শরীফের স্ত্রী আমাকে ঝাড়ুপেটা করেছে। তাই ছেলেরা আবেদ শরীফ ও তার লোকজনদের মারধর করেছে। ওই সময় আমি বাড়িতে ছিলাম না।’

মুলাদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এস.এম মাকসুদুর রহমান বলেন, হাত-পা ভেঙে দেওয়ার বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Previous articleকমলো পাম অয়েলের দাম, বাড়লো চিনির
Next articleসব অর্থনৈতিক চ্যালেঞ্জ কাটিয়ে উঠব: প্রধানমন্ত্রী
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।