মাসুদ রানা রাব্বানী: রাজশাহী বিভাগের কোনো কোনো স্থানে ‘হ্যান্ড ফুট অ্যান্ড মাউথ ডিজিজ’ নামে এক ধরনের সংক্রামক রোগ দেখা যাচ্ছে। এ নিয়ে আপাতত উদ্বেগ ও উৎকণ্ঠা না থাকলেও সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিশুদেরকে একে অপরের সঙ্গে আলিঙ্গন করা থেকে বিরত থাকার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।

বুধবার (১২ অক্টোবর) দুপুরে অনুষ্ঠিত রাজশাহী বিভাগীয় উন্ময়ন সমন্বয় সভায় স্বাস্থ্য বিভাগের পরিচালক এই তথ্যটি জানিয়েছেন। রাজশাহী বিভাগীয় উন্নয়ন সমন্বয় সভা বুধবার বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। বিভাগীয় কমিশনার জিএসএম জাফরউল্লাহ সভায় সভাপতিত্ব করেন। সমন্বয় সভায় স্বাস্থ্য বিভাগের পক্ষ থেকে জানানো হয়, রাজশাহী বিভাগে ৫-১১ বছর বয়সী ২৫ লাখ ২২ হাজার শিশুকে করোনার টিকা প্রদানের প্রাথমিক লক্ষ্য নির্ধারিত হয়েছে এবং প্রথম দিনই ১ লাখ ৮৫ হাজার শিশুকে টিকা প্রদান করা হয়েছে।

রাজশাহী বিভাগে এখন পর্যন্ত ২০৬ জনের ডেঙ্গু শনাক্ত হয়েছে। তবে কেউ মৃত্যুবরণ করেননি। কোনো কোনো স্থানে হ্যান্ড ফুট অ্যান্ড মাউথ ডিজিজ নামে এক ধরনের সংক্রামক রোগ দেখা যাচ্ছে জানিয়ে স্বাস্থ্য বিভাগের পরিচালক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিশুদেরকে একে অপরের সাথে আলিঙ্গন করা থেকে বিরত থাকার পরামর্শ দেন। বিভাগীয় সঞ্চয় দপ্তর থেকে জানানো হয়, সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগ আগের চেয়ে কিছুটা কমেছে তবে সঞ্চয় অফিসের সব লেনদেন অটোমেশনের আওতায় চলে এসেছে।

রাজশাহী জেলাতে কিছু পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদের কাছে একটি বড় অঙ্কের বিদ্যুৎ বিল বকেয়া আছে উল্লেখ করে ওই বকেয়া বিল আদায়ে পল্লী বিদ্যুতের পক্ষ থেকে সমন্বয় সভায় সহযোগিতা চাওয়া হয়। রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার বিষয়টি তদারকি করতে রাজশাহী জেলা প্রশাসককে নির্দেশ দেন। সভায় বিভিন্ন দপ্তর প্রধান নিজ নিজ দপ্তরের উন্নয়ন কাজের চিত্র তুলে ধরেন।

রাজশাহী বিভাগের আট জেলার জেলা প্রশাসক এবং বিভিন্ন বিভাগীয় দপ্তরের দপ্তর প্রধানরা এ সমন্বয় সভায় উপস্থিত ছিলেন।

Previous articleরাজশাহীর বায়ায় আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জমি দখলের অভিযোগ
Next article২ লাখ টাকা দেনমোহরে ৮০ বছরের বৃদ্ধের দ্বিতীয় বিয়ে
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।