অতুল পাল: বাউফলে বিচারপ্রার্থী এক নারীকে পেটানোর ভয় দেখিয়ে থানা থেকে বের করে দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। শুক্রবার মধ্যরাতে বাউফল থানায় ওই ঘটনা ঘটেছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, বাউফল সদর ইউনিয়নের গোসিংগা গ্রামের জগবন্ধু কুলুর সঙ্গে প্রতিবেশি গৌতম কুলুর (৫৫) দীর্ঘদিন থেকে জমিজমা নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। ওই বিরোধের জের ধরে শুক্রবার দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়।

সংঘর্ষে গৌতম কুলু ও তার ছেলে গোকুল কুলু গুরতর আহত হলে পিতা-পুত্রকে বাউফল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তির পর উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানা হয়। এদিকে রাতে গৌতম কুলুর স্ত্রী জোসনা রানী থানায় অভিযোগ নিয়ে গেলে ডিউটি অফিসার আশিকুর রহমান তাকে এসআই প্রসেনজিতের কাছে পাঠান। এসআই প্রসেনজিত অভিযোগপত্রটি হাতে নিয়ে জোসনা রানীর কাছে টাকা দাবি করেন। টাকা না দেয়ায় এসআই প্রসেনজিত অভিযোগপত্রটি রেখে দিয়ে জোসনা রানীকে মারপিটের ভয় দেখিয়ে থানা থেকে বের করে দেন।

জোসনা রানী বলেন, আমি অভিযোগ নিয়ে থানায় যাওয়ার পর আমাকে কয়েকঘন্টা বসিয়ে রাখা হয়। এরপর আমার কাছে টাকা দাবি করেন এসআই প্রসেনজিত। টাকা দিতে অপরাগতা প্রকাশ করায় তিনি আমাকে মারপিটের ভয় দেখিয়ে ধমক দিয়ে থানা থেকে বের করে দেন। এবিষয়ে অভিযুক্ত এসআই প্রসেনজিৎ সাংবাদিকদের বলেন, আমি ঘটনাস্থলে গিয়েছিলাম। স্থানীয় চেয়ারম্যান বিষয়টি মীমাংসার জন্য বলেছেন।

জোসনা রানীর কাছে টাকা দাবী ও বের করে দেওয়ার অভিযোগ মিথ্যা। বাউফল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আল মামুন জানান, এ বিষয়ে আমি অবগত নই। তবে অভিযোগকারী অভিযোগ দাখিল করলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Previous articleউলিপুরে গলায় ফাঁস দিয়ে যুবকের আত্মহত্যা
Next articleকিইউদের কাছে বড় ব্যবধানে হেরে বিশ্বকাপ শুরু অস্ট্রেলিয়ার
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।