শুক্রবার, জুলাই ১৯, ২০২৪
Homeসারাবাংলাকৃষকের পাকা ধান কেটে ঘরে তুলে দিলো নোবিপ্রবি ছাত্রলীগ

কৃষকের পাকা ধান কেটে ঘরে তুলে দিলো নোবিপ্রবি ছাত্রলীগ

বাংলাদেশ প্রতিবেদক: নোয়াখালী সদর উপজেলার নোয়াখালী ইউনিয়নের নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন এলাকার কৃষক হোসেন আলীর ৯০ শতাংশ পাকা বোরো ধান কেটে দিয়েছেন নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (নোবিপ্রবি) ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। পরে ওই ধানগুলো মাড়াই দিয়ে কৃষকের ঘরেও তুলে দিয়েছেন তারা। এতে অর্থের কারণে শ্রমিক সংকটে থাকা কৃষক হোসেন আলীর মুখে হাসি ফুটেছে। ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের এমন সহযোগিতা পেয়ে খুশি তিনি।

শনিবার (২৯ এপ্রিল) দুপুরে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যাল ছাত্রলীগ নেতা জাহিদ হাসান শুভ তার নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে এ ধানগুলো কেটে দেন।

কৃষক হোসেন আলী বলেন, অর্থনৈতিক সমস্যার কারণে শ্রমিকদের মজুরিও এবার বেশি। জেলার বাইরে থেকে এবছর শ্রমিক কম আসায় শ্রমিক সংকটও রয়েছে এবং ঝড় বৃষ্টির শংকায় জমির পাকা ধান ঘরে তোলা নিয়ে চরম দুচিন্তায় ছিলেন তিনি। এমনসময় ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী তার জমির ধানগুলো কেটে, মাড়াই দিয়ে ঘরে তুলে দিয়েছে। তাদের এমন উদ্যোগে ভীষণ খুশি তিনি। শ্রমিক দিয়ে ধান কাটা ও মাড়ায়ে আরও অনেক টাকার দরকার হতো। কোন প্রকার প্রতিদান ছাড়া নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা আমার ধানগুলো ঘরে তুলে দিয়েছে। তাদের মতো বাকিরাও যদি এভাবে গরীব কৃষকদের পাশে দাঁড়াতো তাহলে ধান কাটা নিয়ে দুশ্চিন্তা করা লাগতো না। তারা আমার উপকার করেছে। তাদের এমন কর্মকান্ডে আমি অনেক খুশি।

ছাত্রলীগ নেতা জাহিদ হাসান শুভ বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চতুর্থ শিল্প বিপ্লব সফল করতে, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের নির্দেশনায় সারা বাংলাদেশে কৃষকদের সাহায্য করতে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা ধান কেটে ঘরে তুলে দিচ্ছে। তারই ধারাবাহিকতায় আমরা নোবিপ্রবি ছাত্রলীগ গরীব কৃষকদের ধান কেটে ঘরে তুলতে সাহায্য করেছি। আমাদের এই কার্যক্রম ধারাবাহিক ভাবে চলবে।

আজকের বাংলাদেশhttps://www.ajkerbangladesh.com.bd/
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।
RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments