বাংলাদেশ প্রতিবেদক: পনেরো বার জেলে যাওয়ার পরও ছাড়েনি লুটপাট ও ডাকাতি। উল্টো দিনে দিনে হয়ে উঠেছে চক্রের নেতা। দিনের আলোয় ৫টি দলে ভাগ হয়ে গণপরিবহনে মোবাইল এবং অন্যান্য মালামাল লুট করে। সন্ধ্যা নামলেই নির্জন এলাকা হয়ে উঠে ভয়ংকর। চট্টগ্রামে গণপরিবহনভিত্তিক ছিনতাইকারী দলের ৮ সদস্যকে অস্ত্রসহ গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (১১ ফেব্রুয়ারি) মধ্যরাতে নগরীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে গ্রেফতার করা হয় তাদের। উদ্ধার করা হয় অস্ত্রসহ অন্যান্য মালামাল।

ছিনতাইকারী দলের ৮ সদস্য ডবলমুরিং থানায় অফিসার ইনচার্জের কক্ষে অভিনয় করিয়ে দেখায় কীভাবে তারা গণপরিবহনে ছিনতাই করে। মূলত যাত্রীবাহী বাসে উঠে কৃত্রিম ভিড় সৃষ্টি করে এই দলের সদস্যরা। এরপর কৌশলে ছিনতাই করে গাড়ি থেকে নেমে যায়। আর ছিনতাইকৃত মোবাইল বিক্রি করে দেয় নগরীর রিয়াজুদ্দিন বাজার এবং তামাকুমন্ডি লেইনে।

ডবলমুরিং থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ মহসিন বলেন, ‘আমরা একটি সংঘবদ্ধ ছিনতাইকারী চক্র ধরেছি। তারা বিভিন্ন গণপরিবহনে কৃত্রিম ভিড় সৃষ্টি করে ছিনতাই করে আবার রাতের অন্ধকারে ডাকাতি করে।

৮ সদস্যের ছিনতাইকারী এই দলের দলনেতা তাজুল ইসলামের আগে ১৫ বার পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়েছিলেন। আর জনি হলো পুলিশের সোর্স।

গ্রেফতার হওয়া ৮ জনের বিরুদ্ধে ডবলমুরিং থানায় ৩টি মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। অবশ্য এদের বিরুদ্ধে নগরীর বিভিন্ন থানায় ৫ থেকে ১০টি মামলা রয়েছে।