বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ১১, ২০২৪
Homeসম্পাদকীয়বিবিসি'র সেরা বাংলা গান এবং কিছু কথা - রফিক সুলায়মান

বিবিসি’র সেরা বাংলা গান এবং কিছু কথা – রফিক সুলায়মান

বাংলাদেশ প্রতিবেদক: বিবিসি’র এই জরিপটি হয়েছিলো প্রায় ১৬ বছর আগে [১৪ এপ্রিল- ৩ মে ২০০৬]। এর মধ্যে আর কোন জরিপ হয়নি। তাই এর আলোকেই দুটো কথা শেয়ার করতে চাই।

গানের তালিকা দেখলে আমরা লক্ষ্য করি যে এটি প্রায় ১০০ বছর কাভার করেছে, যেহেতু লালন সাঁইজী এবং ডি এল রায়-এর গান আছে এখানে। বাংলাভাষী অঞ্চলের বাইরে আসামের সুর এখানে প্রবেশ করেছে। তালিকার ১ এবং ২০ নম্বরের গান মৌলিক সুরের নয়। ‘আমার সোনার বাংলা’ গুরুদেবের ভাঙ্গা গান। অর্থাৎ প্রচলিত সুরে নতুন করে বাণী বসিয়েছেন তিনি। ২০ নম্বর গানটি ঐতিহাসিক, এই অঞ্চলের প্রথম নকল থিম ও সুরের গান ধরা হয় এটিকে।

তালিকায় গুরুদেবের একটি এবং নজরুলের দুটি গান ঢুকেছে। বাদ পড়েছেন লতা, আরতী মুখোপাধ্যায়, রুনা লায়লা, সাবিনা ইয়াসমিন, নির্মলা মিশ্র, সুবির সেন, নীলুফার ইয়াসমিন, শ্যামল মিত্র, কিশোর কুমার, ফেরদৌসী রহমান প্রমুখ। গীতিকবি হিসেবে বাদ পড়েছেন হাসন রাজা, উকিল মুন্সী, আবু হেনা মুস্তাফা কামাল, শামসুর রাহমান প্রমুখ। তাহলে দুই বাংলা মিলিয়ে করা এই তালিকার গুরুত্ব কি? আমাকে কি বিশ্বাস করতে হবে যে পশ্চিম বাংলার লোকজন নজরুলের ‘কারার ঐ লৌহকপাট’ এবং ‘চল চল চল’ শোনার জন্যে আজো ব্যাকুল? জনপ্রিয়তার দিক থেকে নজরুল-রবীন্দ্রনাথের অনেক অনেক গানের নাম নেয়া যায়। জাতীয় আবেগ এবং জাগরণমূলক গান ছাড়াও তাঁদের হাজারো গান সময়কে অতিক্রম করে আজো তুমুলভাবে টিকে আছে।

দেশের গান হিসেবে কবি শামসুর রাহমান-এর কথায় এবং খোন্দকার নূরুল আলমের সুরে রুনা লায়লার গাওয়া ‘আমার অনেক ঋণ আছে’ গানটি অনবদ্য। কিংবা নজরুল ইসলাম বাবু’র কলমে, আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুলের সুরে ‘সবকটা জানালা খুলে দাও না।’ গানদুটো বাংলার আকাশে বাতাসে আজো অনুরণিত হয়। রুনা-সাবিনার দেশের গানের সংখ্যা নেহায়েত কম নয়। আধুনিক গান নির্বাচনে বিবিসি’র অসম্পূর্ণতা আরো পীড়াদায়ক।

বিবিসি নির্বাচিত তথাকথিত সেরা বাংলা গানের তালিকাঃ

১। আমার সোনার বাংলা আমি তোমায় ভালবাসি : রচনা – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর
২। মানুষ মানুষের জন্যে : মূল রচনা, সুরকার ও শিল্পী – ভূপেন হাজারিকা; বাংলা রূপান্তর শিবদাস বন্দ্যোপাধ্যায়
৩। আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি : গীতিকার – আবদুল গাফফার চৌধুরী; সুরকার – আলতাফ মাহমুদ
৪। কফি হাউসের সেই আড্ডাটা আজ আর নেই : শিল্পী -মান্না দে; গীতিকার – গৌরীপ্রসন্ন মজুমদার; সুরকার – সুপর্ণকান্তি ঘোষ
৫। এক সাগর রক্তের বিনিময়ে বাংলার স্বাধীনতা আনল যারা : সুরকার – আপেল মাহমুদ; গীতিকার – গোবিন্দ হালদার
৬। আমি বাংলায় গান গাই : কথা ও সুর – প্রতুল মুখোপাধ্যায়; শিল্পী – মাহমুদুজ্জামান বাবু
৭। মোরা একটি ফুলকে বাঁচাবো বলে যুদ্ধ করি : গীতিকার – গোবিন্দ হালদার; সুরকার ও শিল্পী – আপেল মাহমুদ
৮। তুমি আজ কতদূরে : শিল্পী – জগন্ময় মিত্র; গীতিকার – প্রণব রায়; সুরকার – সুবল দাসগুপ্ত
৯। এক নদী রক্ত পেরিয়ে : গীতিকার ও সুরকার – খান আতাউর রহমান; শিল্পী – শাহনাজ রহমতুল্লাহ
১০। ধন ধান্য পুষ্প ভরা : গীতিকার ও সুরকার – দ্বিজেন্দ্রলাল রায়
১১। মুছে যাওয়া দিনগুলি আমায় যে পিছু ডাকে : শিল্পী ও সুরকার – হেমন্ত মুখোপাধ্যায়; গীতিকার – গৌরীপ্রসন্ন মজুমদার
১২। সালাম সালাম হাজার সালাম: শিল্পী – মহম্মদ আবদুল জব্বার; গীতিকার – ফজল এ খুদা
১৩। জয় বাংলা বাংলার জয় : গীতিকার – মাজহারুল আনোয়ার; সুরকার – আনোয়ার পারভেজ
১৪। খাঁচার ভিতর অচিন পাখি : রচনা – লালন শাহ; শিল্পী – ফরিদা পারভিন
১৫। একবার যেতে দে না আমার ছোট্ট সোনার গাঁয়ে: শিল্পী – শাহনাজ রহমতুল্লাহ; গীতিকার – মাজহারুল আনোয়ার; সুরকার – আনোয়ার পারভেজ
১৬। কারার ওই লৌহকপাট : রচনা – কাজী নজরুল ইসলাম
১৭। এই পদ্মা এই মেঘনা : শিল্পী – ফরিদা পারভীন; গীতিকার ও সুরকার – অধ্যাপক আবু জাফর
১৮। চল্‌ চল্‌ চল্‌ ঊর্ধগগনে বাজে মাদল : রচনা – কাজী নজরুল ইসলাম
১৯। একতারা তুই দেশের কথা বল্‌ : শিল্পী – শাহনাজ রহমতুল্লাহ; সুরকার – আনোয়ার পারভেজ; গীতিকার – গাজী মাজহারুল আনোয়ার
২০। তুমি কি দেখেছ কভু জীবনের পরাজয়: শিল্পী – মহম্মদ আবদুল জব্বার

সঙ্গীত-প্রিয় বন্ধুগণ এ-বিষয়ে আপনাদের সুচিন্তিত মতামত তুলে ধরবেন বলে আমার বিশ্বাস।

লেখক : সাংবাদিক, কলামিস্ট এবং শিল্প-সমালোচক

আজকের বাংলাদেশhttps://www.ajkerbangladesh.com.bd/
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।
RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments