জয়নাল আবেদীন: বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহর মেয়াদ শেষ হওয়ার পরও তার পিএস আমিনুর রহমান অফিসে আসায় তাঁকে অবরুদ্ধ করে রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মকর্তাদের একাংশ।অধিকার সুরক্ষা পরিষদ ও বঙ্গবন্ধু পরিষদ নামের শিক্ষক-কর্মকর্তাদের সংগঠনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, উপাচার্যের মেয়াদ শেষ। তাই তার পিএসও‘র দায়িত্বে থাকতে পারবে না। এ কারণে তাকে তার কার্যালয়ে অবরুদ্ধ করে রাখা হয়েছে।গণিত বিভাগের শিক্ষক ও বঙ্গবন্ধু পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মশিউর রহমান বলেন, ‘পরিপত্র অনুযায়ী ভিসির মেয়াদ ৩১মে শেষ হয়েছে। ভিসি নাই তো পিএস কীসের? আমরা তাকে স্বসম্মানে রুম থেকে বের হতে বলেছি। উনি বের হননি।লোক প্রশাসন বিভাগের শিক্ষক আসাদ মণ্ডল বলেন, ‘আমাদের অনেকের জীবন শেষ করে দিয়েছে এই আমিনুর রহমান। ভিসি নাই, উনি এখনও কেন চেয়ারে?‘উনার লজ্জা নেই। আমিনুর নিজেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের পিএস দাবি করছেন। এটি লজ্জাজনক ও হাস্যকর।এ ঘটনায় পিএস আমিনুর বলেন, ‘আমার কক্ষে তারা এসেছেন। আমি বলেছি আপনাদের কথায় আমি অফিস ত্যাগ করতে পারি না। তাই আমি নির্দিষ্ট সময় অফিস করব। মন্ত্রণালয়ের নির্দিষ্ট কোনো নির্দেশনা নেই।ক্যাম্পাসে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে কলিমউল্লাহর ‘নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির’ প্রতিবাদ করে তার শাস্তি এবং সহযোগীদের অপসারণের দাবিতে বিক্ষোভ সহ মানবন্ধন করে বঙ্গবন্ধু পরিষদ।এদিকে মেয়াদ শেষের দিন ঢাকায় লিয়াজোঁ অফিসে বসে তড়িঘড়ি করে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন পদে কলিমউল্লাহ নিয়োগ দিচ্ছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।২০১৭ সালের পয়লা জুন চার বছরের জন্য বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ পান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের লোকপ্রশাসন বিভাগের অধ্যাপক ড. নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ। তার চার বছরে মেয়াদের শেষ দিন ছিল সোমবার।তবে উপাচার্য হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয়ে তিনি যোগ দেন ২০১৭ সালের ১৪ জুন।শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দেয়া নিয়োগের প্রজ্ঞাপনে উপাচার্য হিসেবে কলিমউল্লাহর মেয়াদ প্রজ্ঞাপন দেয়ার দিন থেকে নাকি যোগদানের দিন থেকে ধরা হবে, তা পরিষ্কার করে বলা ছিল না।তাকে সমর্থন দেয়া শিক্ষক-কর্মকর্তারা বলছেন, যোগদানের দিন থেকে চার বছর মেয়াদ পূর্ণ হবে। আর বিপক্ষের শিক্ষক- কর্মকর্তাদের দাবি, প্রজ্ঞাপনের দিন থেকেই মেয়াদ চার বছর।উপাচার্যের দুর্নীতির বিরুদ্ধে গঠিত শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের সংগঠন ‘অধিকার সুরক্ষা পরিষদের’ আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মতিউর রহমান অভিযোগ করেন, মেয়াদ শেষ হলেও ঢাকার লিয়াজোঁ অফিসে বসে আগের তারিখ দেখিয়ে বিভিন্ন ফাইলপত্রে স্বাক্ষর করছেন উপাচার্য।মতিউর জানান, গত ২৩ মে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) থেকে পাঠানো একটি পরিপত্রের মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়ের ঢাকাস্থ গেস্ট হাউস ছাড়া কোনো ধরনের লিয়াজোঁ অফিস চালু না রাখতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এমনকি বিশ্ববিদ্যালয়ের কাডেমিক ও প্রশাসনিক কর্মকাণ্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব ক্যাম্পাস ছাড়া অন্য কোথাও না করার জন্য নির্দেশও দেয়া হয়েছে।মতিউর রহমানের অভিযোগ, প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী উপাচার্য হিসেবে চার বছর মেয়াদ শেষ হয়েছে। কিন্তু উপাচার্য ঢাকার লিয়াজোঁ অফিসে বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নিয়ে অফিস করছেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের সব সুবিধা ভোগ করছেন। এটি সম্পূর্ণ অনৈতিক।তিনি বলেন, উপাচার্যের দায়িত্বের শেষ দিনেও ঢাকায় লিয়াজোঁ অফিসে বসে আইন লঙ্ঘন করে বিভিন্ন পদে তড়িঘড়ি করে নিয়োগ দিয়ে চলেছেন কলিমউল্লাহ। মতিউর বলেন, ‘শহীদ মুখতার ইলাহী হলের প্রভোস্ট শাহীনুর রহমানকে অব্যহতি দিয়ে পরিসংখ্যান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. রশিদুল ইসলামকে প্রভোস্ট হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। দায়িত্বের শেষ দিনেও তিনি বেশ কয়েকজন কর্মকর্তাকে বিভিন্ন দপ্তরে বদলি করেছেন।অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ও উপ-পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক ফিরোজুল ইসলাম বলেন, ‘উপাচার্যের শেষ দিনে করোনার ছুটিতে যেসব কর্মকর্তাকে বদলি করা হয়েছে, তা সম্পূর্ণ হয়রানিমূলক ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। আমরা এই হয়রানিমূলক অফিস আদেশ প্রত্যাহার দাবি করছি।’

এ বিষয়ে মন্তব্য করতে রাজি হননি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য সরিফা সালোয়া ডিনা। তবে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার আবু হেনা মোস্তাফা কামাল বলেন‘স্যারের মেয়াদ কবে শেষ হয়েছে তা আমার জানা নেই। তবে প্রজ্ঞাপন না দেখে বলতে পারব না।’য়োগ আর দপ্তর বদলানোর বিষয়ে তিনি বলেন, অনেকে চলতি দায়িত্বে ছিলেন। কিন্তু কোনো সুযোগ-সুবিধা পাননি। এ জন্য তাদের স্থায়ী করা হয়েছে। কর্মকর্তাদের বদলি করে হয়রানি করা হয়েছে, এমন কোনো অভিযোগ তার কাছে নেই।এর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষ উন্নয়ন প্রকল্পে উপাচার্যের বিভিন্ন দুর্নীতির প্রমাণ পায় ইউজিসির তদন্ত কমিটি। তার বিরুদ্ধে অ্যাকাডেমিক, প্রশাসনিক, আর্থিক ও নিয়োগসহ মোট ১শ১১টি অভিযোগ এখন তদন্ত করছে ইউজিসির আরেকটি তদন্ত কমিটি।

Previous articleকক্সবাজারে ফ্ল্যাট থেকে ইয়াবা ও নগদ টাকাসহ নারী গ্রেপ্তার  
Next articleসাঁথিয়ায় মায়ের উপর অভিমান করে স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।