বাংলাদেশ প্রতিবেদক: রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভ বলেছেন, সকল পক্ষের এটা বোঝা প্রয়োজন যে আজ অথবা কাল যুক্তরাষ্ট্রকে সিরিয়া ছাড়তে হবে। কারণ, যুক্তরাষ্ট্র যদি সিরিয়াতে অবস্থান করে তাহলে আরো অনেক সমস্যার সৃষ্টি হবে, অথচ তেমন কোনো ইতিবাচক ফলাফল আসবে না। বুধবার রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী এমন মন্তব্য করেন।

রাশিয়ান গণমাধ্যম আরটিকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে সের্গেই লাভরভ বলেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র জানে যে তারা সিরিয়াতে ভালো নেই। এ অঞ্চলে মার্কিন কর্তৃপক্ষ খুবই অস্বস্তিকর পরিস্থিতির মধ্যে আছে।

তিনি বলেন, সিরিয়াতে মার্কিন কর্তৃপক্ষের উদ্দেশ্য পরিষ্কারভাবেই বোঝা যাচ্ছে। কোনো রাখ-ঢাক না রেখেই যুক্তরাষ্ট্র সিরিয়ার তেলক্ষেত্রগুলো দখল করেছে। এসব তেলক্ষেত্রগুলো সিরিয়ার ইউফ্রেটিস নদীর পূর্ব তীরে অবস্তিত। এছাড়া ওই দেশটির উর্বর জমিগুলোও দখল করেছে তারা। এছাড়া সিরিয়ার কুর্দিদের বিচ্ছিন্নতাবাদেও প্রত্যক্ষ মদদ দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। তারা চায় সিরিয়া বিভক্ত হয়ে যাক। যুক্তরাষ্ট্রের এসব উদ্দেশ্যের কথা সবাই জানে।

লাভরভ বলেন, সিরিয়ার যে সকল অঞ্চলে যুক্তরাষ্ট্র এসব কর্মকাণ্ড চালাচ্ছে সেখানকার আরব বংশোদ্ভূত গোত্রগুলোও তাদের জমি হারাচ্ছে এবং ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। এর মাধ্যমে এ অঞ্চলের মানুষদের (কুর্দি ও আরব) মধ্যে সম্প্রীতি থাকছে না। এর মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রের হয়ে এখানে যারা কলকাঠি নাড়ছেন তারা সিরিয়ার জনগণের কাছে পাত্তা পাচ্ছেন না। আর কুর্দি বিচ্ছিন্নতাবাদ ইস্যু নিয়ে আরব ও কুর্দিরা পরস্পরের শত্রুতে পরিণত হচ্ছেন।

তিনি আরো বলেন, সিরিয়ায় কুর্দি উগ্রবাদী সংগঠন ওয়াইপিজি ও পিকেকে-এর বিষয়ে তুরস্কও চিন্তিত। কারণ, এসব কুর্দি উগ্রবাদী সংগঠন যুক্তরাষ্ট্রকে সহযোগিতা করছে। সমস্যা সমাধানে, তিনি সিরিয়ার সকল কুর্দি সংগঠনগুলোকে দেশটির সরকারের সাথে আলোচনার আহ্বান জানান।

সূত্র : ইয়েনি শাফাক

Previous articleশ্রীবরদীতে নৌকা প্রার্থীর সংবাদ সম্মেলন
Next articleঝালকাঠিতে লঞ্চে অগ্নিকাণ্ডে নিখোঁজদের স্বজনরা তথ্য পাচ্ছেন না
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।