রফিক সুলায়মান: এখন যে কবিতার বইটি পড়ছি এর নাম ‘আমি হব পুলিশ।’ লিখেছেন সাইফুল্লাহ আল মামুন। গত বইমেলা থেকে কেনা। প্রকাশ করেছে জিনিয়াস পাবলিকেশন্স।

সাইফুল্লাহ আল মামুনের আগের প্রকাশনাগুলোও আমার সংগ্রহে আছে। টাক জয়ের টাটকা গল্প, জলের গহনা, জল জোছনার অষ্টমী – কবিতা ও কথাসাহিত্যে সমান গতিশীল একজন লেখক তিনি। পড়াশোনা করেছেন বুয়েটে। পেশায় পুলিশ কর্মকর্তা।

‘আমি হব পুলিশ” কাব্যগ্রন্থের কবিতাগুলো জীবন ও প্রতিবেশকে ধারণ করেছে নিবিড়ভাবে। একজন পুলিশ কর্মকর্তার চোখে সমাজে সংগঠিত প্রতিটি ঘটনার ইমেজ সংরক্ষিত থাকে। ইতিবাচক ও নেতিবাচক প্রতিটি গল্প তিনি তাঁর মতো ব্যাখ্যা করেন। একজন বিচারক যেমন যে কোন মামলার বিষয়ে প্রথম দিনই বুঝতে পারেন প্রকৃত ঘটনা আসলে কী, তেমনি একজন সৎ পুলিশও জানেন সমাজে আসলে কী ঘটছে।

সমাজ সচেতন কবি তিনি। ইতিবাচক বাংলাদেশের স্বপ্নে বিভোর এক কবি। তিনি বিশ্বাস করেন, জ্ঞানী হওয়ার চেয়ে চিন্তাশীল হওয়া শ্রেয়। চিন্তন ও মননে ঘা দেয়ার মতো অনেকগুলো চরণ আছে এই বইতে। ‘ঋদ্ধ বালক’ কবিতাটির সঙ্গে একটি চমৎকার ছবিও যুক্ত করেছেন কবি। কুকুর কোলে এক অবুঝ বালকের ছবি। যারা স্ট্রে ডগ ভালোবাসেন, তাদের কাছে কবিতাটি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠতে বাধ্য। করোনাকাল নিয়ে লেখা ‘ক্ষমা’ কবিতাটিও বারবার পড়ার মতো।

Previous articleতাহিরপুরে ঘর দেওয়ার নামে অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ
Next articleরাজধানীর বারিধারা থেকে ২৭ কোটি টাকার রোলস রয়েস গাড়ি জব্দ
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।