সদরুল আইন: দেশে পঞ্চমবারের মতো উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। প্রথম ধাপে ৭৮ উপজেলায় ভোটগ্রহণ চলছে। সকাল ৮টায় এ ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হলেও অধিকাংশ কেন্দ্রে ভোটার উপস্থিতি নেই বললেই চলে।

কুড়িগ্রামে প্রথম দফায় ৮টি উপজেলায় সকাল ৮টায় ভোটগ্রহণ শুরু হলেও কেন্দ্রগুলোতে ভোটার উপস্থিতি নেই বললেই চলে। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভোটারের উপস্থিতি বাড়বে বলে কর্মকর্তারা অাশা করলেও কাঙ্খিত ভোটারদের দেখা মেলেনি।

জয়পুরহাটে পাঁচটি উপজেলায় এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। তবে ভোটারের উপস্থিতি বেশ কম লক্ষ্য করা গেছে। কেন্দ্রগুলোতে বিপুল সংখ্যক আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য উপস্থিত থাকলেও নেই চোখে পড়ার মতো ভোটার।

পঞ্চগড়েও পাঁচ উপজেলার বিভিন্ন ভোটকেন্দ্রে সকাল ৮টা থেকে একযোগে শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে। তবে সকাল থেকেই ভোটকেন্দ্রগুলোতে ভোটারদের উপস্থিতি কম।

সকাল ১০ পর্যন্ত জেলা শহরের আশপাশে কোনো ভোটকেন্দ্রে ভোটারদের দীর্ঘ লাইন দেখা যায়নি। দুপুরের পরও একই চিত্র দেখা গেছে। প্রত্যেকটি ভোটকেন্দ্রে প্রার্থীদের কর্মী ও সমর্থকদের দু’একজনকে ভোট দিতে দেখা গেছে।

পঞ্চগড় জেলার পাঁচ উপজেলার মধ্যে চার উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। বোদা উপজেলায় ভাইস চেয়ারম্যান ও নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

এখানে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী না থাকায় আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ফারুক আলম টবিকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষণা করেন রিটার্নিং অফিসার।

অপরদিকে রাজশাহীর আট উপজেলায় শান্তিপূর্ণ ভোটগ্রহণ চলছে। রোববার সকাল ৮টা থেকে জেলার ৫২২ ভোটকেন্দ্রে একযোগে ভোটগ্রহণ শুরু হয়।

শুরুতে ভোটারদের উপস্থিতি কম থাকলেও বেড়া বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে তা বাে। উৎসবমুখর পরিবেশে ভোটাধিকার প্রয়োগ করছেন ভোটাররা। এখন পর্যন্ত কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।

পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের এই ধাপে রাজশাহীর ৯ উপজেলায় ভোটগ্রহণের কথা থাকলেও উচ্চ আদালতের নিষেধাজ্ঞায় আটকে যায় পবা উপজেলা পরিষদের নির্বাচন।

সুনামগঞ্জের ৯ উপজেলায় ভোটগ্রহণ শুরু হয় সকাল ৮ টায়। তবে ভোটার উপস্থিতি একেবারে কম। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোথাও কোনো বিশৃঙ্খলার খবর পাওয়া যায়নি।

সুনামগঞ্জ সরকারি জুবিলী উচ্চ বিদ্যালয়, বুলচান্দ উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্র, তেঘরিয়া মাদরাসাসহ শহরের উপকণ্ঠে বিভিন্ন কেন্দ্রে পুরুষ ভোটারদের উপস্থিতি একেবারে নেই বললেই চলে। তবে এসব কেন্দ্রে কিছু নারী ভোটার লাইনে দাঁড়িয়ে ভোট প্রদান করছেন।

এদিকে কড়া নিরাপত্তার মধ্যে দিয়ে নাটোরের সিংড়া, গুরুদাসপুর, বড়াইগ্রাম, লালপুর ও বাগাতিপাড়া উপজেলার ৪৩৭টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ চলছে।

সকালে ভোট শুরুর পর কেন্দ্রগুলোতে ভোটারদের উপস্থিতি ছিল একবারেই কম। তবে ভোট সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে নেওয়া হয়েছে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা।