বাংলাদেশ প্রতিবেদক: চলতি মাসের শেষে কোভ্যাক্সের আওতায় অক্সফোর্ডের অ্যাস্ট্রোজেনেকার ভ্যাকসিন সরাসরি যুক্তরাজ্য থেকে আসবে। এ দফায় বিনামূল্যে ১ লাখ ৩১ হাজার ভ্যাকসিন পাবে বাংলাদেশ।

মঙ্গলবার (০৯ ফেব্রুয়ারি) গণটিকাদান কর্মসূচির তৃতীয় দিনে ঢাকা মেডিকেলের কেন্দ্র পরিদর্শন করেছেন স্বাস্থ্য সচিব আবদুল মান্নান ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এবিএম খুরশিদ আলম একথা বলেন।

এদিকে, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেজিস্ট্রেশন সাপেক্ষে প্রতিদিন টিকা নিতে আসছেন ৭শ’র বেশি মানুষ।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালেও চলছে তৃতীয় দিনের মতো টিকাদান কর্মসূচি। চিকিৎসক-নার্সদের পাশাপাশি কেন্দ্রে গিয়ে রেজিস্ট্রেশনের পর টিকা দিতে পেরে খুশি সাধারণ মানুষ।

দুপুর পৌনে একটায় ডিএমসির টিকাদান কেন্দ্র পরিদর্শন করেন স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিব ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক। টিকা নিয়ে মানুষের মধ্যে ভীতি দূর হয়েছে জানিয়ে স্বাস্থ্য সচিব বলেছেন, চলতি মাসের শেষে কোভ্যাক্স সুবিধায় ১ লাখ ৩১ হাজার ভ্যাকসিন আসবে বিনামূল্যে আসবে বাংলাদেশে।

স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিব আবদুল মান্নান বলেন, আমরা আমাদের সেরামের ক্রয়কৃতটা নিয়ে আসছি। একই সঙ্গে কোভ্যাক্স গাভি অ্যালায়েন্স এটাও পাচ্ছি আরো কিছু ফাইজারের পাচ্ছি সব মিলিয়ে আমাদের ভ্যাকসিনের কোনো সঙ্কট হবে না।

প্রতিদিন ৫০০ জনকে টিকা দেবার লক্ষ্য নির্ধারণ করা হলেও এখন তা ৭০০ ছাড়িয়ে যাচ্ছে। রেজিস্ট্রেশনের প্রক্রিয়া সহজ হওয়ায় মানুষের আগ্রহ বেড়েছে বলে মনে করছেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এবিএম খুরশিদ আলম বলেন, একটা ফাইলে ১০ ডোজ থাকে, ১০ জন না হলে সেটি নষ্ট হবে। যে সমস্ত জায়গায় এটা ঠিকমতো মানা হবে না সেখানে নষ্টের পরিমাণটা বেশি হবে। তবে আমরা হিসাব করে দেখেছি এটা এখনো ১০ শতাংশের মতো হয়নি।

প্রতিদিন সকাল ৮টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত ঢাকা মেডিকেলে চলবে টিকাদান কর্মসূচি।

Previous articleশিক্ষার্থীদের গণআত্মহত্যার হুমকি, বেরোবি শিক্ষিকার জিডি
Next articleরংপুরে শপথ নিয়েছেন ৬ মেয়র ৫৭ কাউন্সিলর ও ১৯ সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।