বাংলাদেশ প্রতিবেদক: নোয়াখালীতে মহাত্মা গান্ধীর ১৫২তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে নবরুপায়িত গান্ধী মেমোরিয়াল মিউজিয়ামের উদ্বোধন করা হয়েছে। এর আগে, অতিথিরা গান্ধীজির প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ অর্পণ, নবরূপায়িত গান্ধী স্মৃতি যাদুঘর উদ্বোধন ও পরিদর্শন করেন।

শনিবার (২ অক্টোবর) বিকাল ৪ টার দিকে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক এমপি।

এ সময় আইনমন্ত্রী এডভোকেট আনিসুল হক বলেছেন,১৯৪৬ সালে মহাত্মা গান্ধী নোয়াখালীর সুধামপুর গ্রামে পৌঁছার পর গান্ধীজি ঘোষণা দিয়ে ছিলেন আমি সর্ব অর্থে বাঙ্গালী হয়ে গেছি আজ। তার এ কথাটা দাঙ্গা পিড়িত মানুষের মন জিতে নিয়ে ছিল। গান্ধীর সম্পর্কে অবাধ শ্রদ্ধা আজো দেখা যায় এ অঙ্গনে। আসলে এর পিছনে ছিল সাহস।বাঙ্গালী না হয়েও গান্ধীজি যা দেখাতে পেরে ছিলেন। এমন সাহসের অনেক নজির আজো অকোচিত রয়ে গেছে বাংলার ইতিহাসে।

মহাত্মা গান্ধীর ১৫২ তম জন্মবার্ষিকী, আন্তর্জাতিক অহিংসা দিবস এবং নবরূপায়িত গান্ধী স্মৃতি যাদুঘরের উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত অহিংসা, সত্যাগ্রহ এবং মহাত্মা গান্ধী বিষয়ক আলোচনা সভায় কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, সে সময় মুসলিম লীগ নেতারা পরিকল্পিত ভাবে অপপ্রচার চালাতে থাকেন যেন মহাত্মা গান্ধীকে নোয়াখালী থেকে বিতাড়িত করা যায়। মুসলিম লীগ সমর্থিত পত্রিকা গুলো তাকে বিচ্ছিন্ন ভাবে তুচ্ছ তাচ্ছিল্য করে ব্যঙ্গ সহকারে খবর পরিবেশন করা হত। মুসলিম লীগের এসব কুপ্রচারণায় গান্ধীজি মোটেও বিচলিত হননি। হিংসা থেকে দূরে রাখাই ছিল মহাত্মা গান্ধীর অন্যতম মূলমন্ত্র।
তিনি আরো বলেন,আজ সারা বিশ্বে সম্প্রদায় সম্প্রদায় জাতিতে জাতিতে যে বিদে¦ষ, হিংসা ছড়িয়ে পড়েছে তা থেকে মানবজাতীকে রক্ষা করতে মহাত্মা গান্ধীর অহিংস বাণী প্রেরণা যোগায়। হিংসা দিয়ে পৃথিবীতে কখনোই কোন সমস্যার সমাধান হয়নি। তাই সংঘাত মুক্ত সমাজ,সংঘাত মুক্ত পৃথিবী, যুদ্ধ মুক্ত বিশ্ব গঠনে মহাত্মা গান্ধীর দর্শন মানুষকে বহুল ভাবে অনুপ্রাণিত করে। স্বাভাবিক অস্ত্রের বিপরীতে অহিংস অস্ত্র অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের মনে রাখতে হবে অহিংসা সৃষ্টি করে, ধ্বংস করেনা।

গান্ধী আশ্রম ট্রাস্টের সভাপতি বিচারপতি সৌমেন্দ্র সরকারের সভাপতিত্বে এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে এম আব্দুল মোমিন এমপি, বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার শ্রী বিক্রম দোরাইস্বামী, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব আসাদুজ্জামান নূর এমপি, অরোমা দত্ত এমপি, বাংলাদেশে জাতিসংঘের অন্তবর্তীকালীন প্রতিনিধি তৌম পউতিআইনেন, নোয়াখালী জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম, পুলিশ সুপার এসপি মো. শহীদুল ইসলাম প্রমূখ।

Previous articleরংপুরে সুসজ্জিত গাড়িতে চড়ে অবসরে গেলেন পুলিশ সদস্য, পৌছে দেয়া হলো গ্রামের বাড়িতে
Next articleচাঁপাইনবাবগঞ্জে র‌্যাবের অভিযানে ৫০০ গ্রাম হেরোইনসহ আটক ১
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।