বাংলাদেশ প্রতিবেদক: নতুন নির্বাচন কমিশন গঠনে নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলগুলোর সাথে প্রেসিডেন্টের সংলাপে অংশ না নেয়ার সিদ্ধান্ত জানিয়েছে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি)।

শুক্রবার বিকেলে রাজধানীর উত্তরায় নিজ বাসভবনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ সিদ্ধান্তের কথা জানান দলটির সভাপতি আ স ম আব্দুর রব।

তিনি বলেছেন, সংলাপ নির্বাচন কমিশন নিয়ে নয়, সংলাপ হতে হবে নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠান ও আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে জাতীয় সরকার গঠন প্রক্রিয়া নিয়ে। একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের গ্যারান্টি এখন অতীব গুরুত্বপূর্ণ।

জেএসডি সভাপতি বলেন, শুধুমাত্র নির্বাচন কমিশন গঠন নিরপেক্ষ অবাধ নির্বাচনের জন্য কোন গ্যারান্টি বা সমাধান নয়। ফলে, বাস্তবতার প্রেক্ষিতে মহামান্য প্রেসিডেন্টের সংলাপে জেএসডি অংশগ্রহণ করছে না। এ ধরনের অর্থহীন সংলাপ রাষ্ট্রপতির মর্যাদা সুরক্ষার উপযোগীও নয়।

আ স ম রব বলেন, নির্বাচন প্রশ্নে প্রেসিডেন্ট, সরকার, নির্বাচন কমিশন সকলেই সংবিধান লঙ্ঘনের সঙ্গে জড়িত। যারা সংবিধান লঙ্ঘনকারী তাদের অবশ্যই জাতির কাছে দুঃখ প্রকাশ করে ক্ষমা চাওয়া উচিত। বিদ্যমান নির্বাচন কমিশন বর্তমান প্রেসিডেন্ট কর্তৃক নিয়োগপ্রাপ্ত। কিন্তু এই কমিশন চরম পক্ষপাতদুষ্ট হয়ে নির্বাচনী ব্যবস্থাকে ধ্বংসের মাধ্যমে ‘দিনের ভোট রাতে’ সম্পন্ন করে সংবিধান, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রের স্বপ্নকে বধ্যভূমিতে পরিণত করেছে এবং সমগ্র জাতির সাথে বিশ্বাসঘাতকতা করেছে।

সংলাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন জেএসডির অ্যাডভোকেট ছানোয়ার হোসেন তালুকদার, তানিয়া রব, শহীদ উদ্দিন মাহমুদ স্বপন, তৌহিদ হোসেন, কামাল উদ্দিন পাটোয়ারী, অ্যাডভোকেট বেলায়েত হোসেন বেলাল, শামসুল আলম নিক্সন, ফারজানা দিবা, মোহাম্মদ শফিক, গোলাম মোস্তফা আফসার উদ্দিন প্রমুখ।

Previous articleলক্ষ্মীপুরে মেঘনার তীরে নান্দনিক মসজিদ ভবন উদ্বোধন
Next articleটাঙ্গাইলে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় মা-মেয়েসহ নিহত ৭
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।