ইতিহাস গড়ে জিততে হবে বাংলাদেশকে

ইতিহাস গড়ে জিততে হবে বাংলাদেশকে

বাংলাদেশ প্রতিবেদক: বৃষ্টির কারণে চতুর্থ দিনের নির্ধারিত সময়ে খেলা শুরু হয়নি। খেলা গড়ায় প্রায় আড়াই ঘণ্টা পরে। ৮ উইকেটে ২৩৭ রান নিয়ে দিনের খেলা শুরু করে আফগানিস্তান। আফসার জাজাই ৩৪ এবং শূন্য রান নিয়ে ইয়ামিন আহমেদজাই ব্যাটিংয়ে নামেন।
তবে দলীয় স্কোর বোর্ডে খুব বেশি রান যোগ করতে পারেননি আফগানরা। ২৬০ রানেই গুটিয়ে গেছেন তারা। এ রানে রানআউটে কাটা পড়েন ইয়ামিন। খানিক পরেই মেহেদী হাসান মিরাজের শিকার হন জহির খান। তিনি কোনো রান যোগ করতে পারেননি। আফসার ৪৮ রানে অপরাজিত থাকেন।
শনিবার রাত থেকে রোববার সকাল পর্যন্ত থেমে থেমে বৃষ্টি হয়েছে। এতে সাগরিকার মাঠ খেলার অনুপযোগী হয়ে পড়ে। ফলে চতুর্থ দিনের খেলা শুরু হতে দেরি হয়। কাভার দিয়ে উইকেট ঢেকে রাখা হয়। ড্রেসিংরুমে বন্দি ছিলেন ক্রিকেটাররা।
অবশেষে বেলা ১১টা ৫০ মিনিটে খেলা শুরু হয়। নির্ধারণ করা হয়, দুপুর ১টায় লাঞ্চ বিরতিতে যাবে দুই দল। চা বিরতি হবে ৩টা ৪০ মিনিটে। আর ৫টা ৪০ মিনিট পর্যন্ত হবে দিনের খেলা।
তবে শংকার বিষয় আবহাওয়া অফিস বলছে, রোববার সারাদিন মেঘ-বৃষ্টির খেলা চলার সম্ভাবনা রয়েছে। ফলে কতক্ষণ খেলা হয়, তাই দেখার। আলোক স্বল্পতার কারণে গতদিন কিছুক্ষণ আগে খেলা শেষ হয়। ফলে চতুর্থ দিন ২০ মিনিট আগে তা শুরু হওয়ার কথা ছিল। তবে বৃষ্টির কারণে সম্ভব হয়নি।
এখন পর্যন্ত এ টেস্টে চালকের আসনে আফগানিস্তান। কোণঠাসা হয়ে রয়েছে বাংলাদেশ। ৩৯৭ রানের লিড পেয়েছে সফরকারীরা। নিঃসন্দেহে দুদলের একমাত্র টেস্টের নাটাই তাদের হাতে। এ ম্যাচ জিততে হলে অসাধ্য সাধন করতে হবে টাইগারদের। ইতিহাস গড়ে জিততে হবে তাদের। কারণ, এর আগে এত রান তাড়া করে জেতার কীর্তি নেই বাংলাদেশের।
নিজেদের প্রথম ইনিংসে স্বপ্নের মতো ব্যাটিং করে আফগানিস্তান। রহমত শাহর ইতিহাস গড়া সেঞ্চুরিতে তোলে দলীয় সর্বোচ্চ ৩৪২ রান। জবাবে প্রথম ইনিংসে ২০৫ রানে গুটিয়ে যায় বাংলাদেশ।