বাংলাদেশ ডেস্ক: অস্ট্রেলিয়া ম্যাচের আগে সুস্থ হয়ে ওঠলেন মালিক ও রিজওয়ান। ম্যাচের আগের দিন আগেই দুজনই ফ্লুতে আক্রান্ত হয়েছিলেন। এতে সেমিফাইনালে তাদের অংশগ্রহণ নিয়ে তৈরি হয়েছিল অনিশ্চয়তা। দু’জনেই ঠাণ্ডাজনিত সমস্যায় ভুগছিলেন। ওই সময় অনেকেই ভেবেছিলেন, তাদের করোনা হয়েছে। সেই সময় সাবধানতার অংশ নেয়ার জন্য করোনা পরীক্ষাও করা হয়। তবে সেই পরীক্ষায় দুজনের রিপোর্টই নেগেটিভ আসে। তবুও অনুশীলন সেশনে অংশ নেননি তারা। মেডিকেল টিমের পরামর্শে বিশ্রামে ছিলেন শোয়েব মালিক ও মোহম্মদ রিজওয়ান।

পাকিস্তানের টিম ম্যানেজমেন্ট তখন জানিয়েছিল, ম্যাচের দিনই সিদ্ধান্ত নেয়া হবে এই দুই তারকার ব্যাপারে। অবশেষে সেমিফাইনালের কয়েক ঘণ্টা আগে পাকিস্তান নিশ্চিত করল, ম্যাচ খেলার মতো ফিট আছেন মালিক ও রিজওয়ান। ফলে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে হাই ভোল্টেজ ম্যাচের বিবেচনায় স্বভাবতই থাকছেন তারা। চলতি আসরে মালিক ও রিজওয়ান দুইজনই দারুণ ফর্মে রয়েছেন। দলকে সেমিফাইনালে তুলতেও বড় ভূমিকা পালন করেছেন। সেমিফাইনালেও দল তাকিয়ে থাকবে এই দুই পারফর্মারের দিকে।

শোয়েব মালিক ও মহম্মদ রিজওয়ান ফিট হয়ে ওঠায় পাকিস্তানের একাদশে পরিবর্তনের সম্ভাবনা নেই বললেই চলে। চলতি আসরে পাকিস্তান সবকটি ম্যাচ খেলছে অপরিবর্তিত একাদশ নিয়ে। এখন পর্যন্ত একটি ম্যাচও হারেনি বাবর আজমের দল। দাপুটে জয় পেয়েছে সুপার টুয়েলভের সবকয়টি ম্যাচেই। দল দারুণ ছন্দে থাকায় পরীক্ষা-নিরীক্ষা নিয়ে ভাবতে হচ্ছে না টিম ম্যানেজমেন্টকে। দলে মালিক ও রিজওয়ানের যুক্ত হওয়ায় পাকিস্তানের শক্তি বৃদ্ধি পেয়েছে।
সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস

Previous articleজয়পুরহাটে বিচারককে প্রত্যাহারের দাবিতে আইনজীবীদের আলটিমেটাম
Next articleধর্ষণের ৭২ ঘণ্টা পর মামলা না নিতে পুলিশকে পরামর্শ আদালতের
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।