বাংলাদেশ প্রতিবেদক: দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচটায় ব্যাট হাতে দারুণ শুরু করেছিলেন দুই ওপেনার। সৌম্য সরকার ও নাজমুল হোসেন শান্তের খেলা প্রথম দুই ওভারে ২৬ রান সংগ্রহ করে ফেলেছিলো বাংলাদেশ। কিন্তু এর পর পরই পথ হারায় টাইগাররা, আর শেষ পর্যন্ত মাত্র ১০১ রান কতে পারে বাংলাদেশ।

স্বাভাবিকভাবেই ব্যাটসম্যানদের ব্যাটিংয়ের এমন বিবর্ণ রূপ দেখে হতাশ হয়েছেন সমর্থকরা, হতাশ হয়েছে ম্যানেজমেন্টও। তাছাড়া ব্যাটিং ধসের কারণ হিসেবে ব্যাটিং কোচ জেমি সিডন্স জানালেন, ‘আমরা বাতাসে বল বেশি হিট করি। ড্রেসিংরুম থেকে বার্তা ছিলো, যাও ব্যাটিং কর। দেখি কতদূর যেতে পারি। শুরুটাও ভালো ছিলো। কিন্তু তারপর সবাই বাতাসে বল বেশি হিট করেছে। এবং সেটাই আমাদের চাপে ফেলেছে।’

একইসাথে এক নির্মম সত্যও তুলে ধরলেন সিডন্স। বললেন, ‘আমরা বড় ছক্কা হাকানোর দল নই, আমাদের তাই আরো স্মার্ট হতে হবে।’

এই সময় রাইলি রুশো ও ডি ককের ব্যাটিং টেনে বলেন, ‘রুশো ও ডি কক যা করেছে তা আমাদের ট্যাকটিস থেকে ভিন্ন। রুশো কোনো চেষ্টা ছাড়াই বল বাউন্ডারি পার করে ফেলছিলো। যেই সামর্থ্য আমাদের নেই। আর বেশি ছক্কা মারতে গিয়ে আমরা খুব বেশি ম্যাচও জিতিনি।’

সিডন্স মনে করেন বাকি পেসারদের বেশ ভালোভাবেই সামলেছে তার দল। তবে এক এনরিখ নর্খিয়াতেই ঘায়েল হয়েছে বাংলাদেশ। এই সময় তিনি স্পিনে বাংলাদেশের দুর্বলতার কথাও স্বীকার করে নেন। সিডন্স বলেন, ‘আমরা তিন পেসারের একজনকে ছাড়া বাকিদের ভালোই সামলেছি। তবে আমরা পেস নয়, স্পিনেই কুপোকাত হয়েছি। যেখানে আমরা পাওয়ার হিটিংয়ে বড় শটে দ্রুত রান তুলতে যাই, যা আমাদের কাজ নয়। আমরা পাওয়ার হিটিং পারি না।’

Previous articleরংপুরে পরিবহন ধর্মঘট: পথে পথে সাধারণ মানুষের দুর্ভোগ ও ভোগান্তি
Next articleমুলাদীতে অনিয়ম ও লুটপাটের মধ্য দিয়ে শেষ হলো ইলিশ রক্ষা অভিযান
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।