বাংলাদেশ প্রতিবেদক: ইতিহাস গড়া জয় দিয়েই বিশ্বকাপ মিশন শুরু করলো বাংলাদেশ। অস্ট্রেলিয়া অনুর্ধ্ব ১৯ প্রমিলা দলকে ৭ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে বাংলার জুনিয়র বাঘিনীরা। দক্ষিণ আফ্রিকার বেনোনিতে জয়ের জন্য বাংলাদেশকে ১৩১ রানের লক্ষ্য দেয় অস্ট্রেলিয়া। ২ ওভার বাকি থাকতেই স্বাচ্ছন্দ্যে সেই রান ছুঁয়ে ফেলে দিশা বিশ্বাসের বাংলাদেশ অনুর্ধ্ব ১৯ নারী দল।

শনিবার ১৩১ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে প্রথম বলেই উইকেট হারায় বাংলাদেশ। ০ রানে ফেরেন রাণী সাহা। তবে এরপর দিলারা আক্তার ও আফিয়া হুমায়রা মিলে গড়েন ৬৬ বলে সমান ৬৬ রানের জুটি। দিলারা আক্তার ৪০ রানে ফিরলে ভাঙে এই জুটি, একই ওভারে ফেরেন ২৪ করে হুমারাও। দ্রুত ২ উইকেট হারিয়ে বিপাকে পড়ে বাংলাদেশ।

তবে কোনো বিপদ আসতে দেননি স্বর্ণা আক্তার ও সুমাইয়া আক্তার জুটি। তাদের হার না মানা ৪৪ বলে ৬১ রানের জুটিতে ২ ওভার বাকি থাকতেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় বাংলাদেশ। সুমাইয়া ২৫ বলে ৩১ ও স্বর্ণা অপরাজিত থাকেন ১৮ বলে ২৩ রানে।

এর আগে টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে মাত্র ১৩০ রানেই থামে অজি কন্যাদের ইনিংস। শুরু থেকেই অস্ট্রেলিয়াকে চেপে ধরে বাংলাদেশের মেয়েরা। দ্বিতীয় ওভারেই পারিস বোডলারকে বোল্ড করেন দিশা। আরেক ওপেনার ক্যাট পেলেকেও থিতু হতে দেননি ডানহাতি এই পেসার। দিশার বলে স্বর্ণার হাতে ক্যাচ দিয়ে ৫ রানে ফেরেন ক্যাট।

তবে এরপর ৭৬ রানের দারুণ এক জুটি গড়ে তোলেন ক্লেইর মোর এবং এল্লা হাওয়ার্ড। ৪৭ বলে হাফ সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন ক্লেইর। তবে এরপর বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি তিনি, ৫২ রান করে আউট হন ক্লেইর। থিতু হতে পারেননি লুচি হ্যামিল্টনও, মারুফা আক্তারের বলে বোল্ড হয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন লুচি।

একই ওভারে আউট হয়েছেন দারুণ ব্যাট করতে থাকা হাওয়ার্ড। মারুফার বলে লেগ সাইডে খেলতে গিয়ে সুমাইয়ার হাতে ক্যাচ দেন ৩৫ রান করা এই ব্যাটার। শেষ দিকে অ্যামি স্মিথ এবং রেইস ম্যাকেন্না মিলে অস্ট্রেলিয়ার রান ১৩০-এ নিয়ে যান। বাংলাদেশের হয়ে দুটি করে উইকেট নিয়েছেন মারুফা ও দিশা।

Previous articleঝিকরগাছায় শিক্ষা কারিকুলামের ট্রেনিংয়ের অর্ধেক নাস্তা উধাও!
Next articleশাহজাদপুরে নদী থেকে যুবকের হাত-পা বাঁধা মরদেহ উদ্ধার
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।