প্রতীকী ছবি

আব্দুদ দাইন: সাঁথিয়ায় প্রবাসীর স্ত্রীর সাথে কলেজ ছাত্রের অভিষার করতে গিয়ে প্রেমিক যুগল শ্রীঘরে। বিষয়টি নিয়ে এলাকায় চাঞ্চল্যকর অবস্থা বিরাজ করছে। ঘটনাটি ঘটেছে পাবনার সাঁথিয়া উপজেলার নন্দনপুর ইউনিয়নের চরভদ্রকোলা গ্রামে। সোমবার পুলিশ প্রেমিক যুগলকে জেলহাজতে প্রেরন করেছে। থানা পুলশ ও এলাকাবাসী সুত্রে জানা যায়, উপজেলার চরভদ্রকোলা গ্রামের বাসিন্দা জয়নাল আবেদীনের সৌদি আরব প্রবাসী ছেলে সেলিমের সাথে পাশ্ববর্তী সুজানগর উপজেলার চরগোবিন্দ্রপুর গ্রামের রইজের মেয়ে রাজিয়া খাতুনের চার বছর আগে বিয়ে হয়। বিয়ের পর সেলিম আবার সৌদিআরব কর্মস্থলে চলে যান। কিছু দিনের মধ্যে পার্শ্ববতী রসুলপুর গ্রামের আঃ মতিনের ছেলে মিয়াপুর কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র নাইমের সাথে সেলিমের স্ত্রী রাজিয়া পরিচয় সুত্রে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়ে। সম্পর্কের এক পর্যায়ে রবিবার রাতে রাজিয়া নাইমকে মোবাইল ফোনে শ্বশুর বাড়ীতে ডেকে আনে। নাইমকে নিয়ে রাজিয়া তার ঘরে প্রবেশ করে। রাজিয়ার দেবর ফিরোজ বিষয়টি টের পেয়ে বাইরে থেকে দরজায় তালা লাগিয়ে প্রতিবেশীদের ডেকে প্রেমিক যুগলকে আটক করে। স্থানীয়দের কাছে রাজিয়া জানায়, তাদের সাড়ে তিন বছর ধরে প্রেম চলছিল। সংবাদ পেয়ে থানা পুলিশ প্রেমিক যুগলকে উদ্ধার করে। ওই ওয়াডের ইউপি সদস্য রহমত আলী বলেন, এই পরকীয়া প্রেমের বিষয় নিয়ে স্থানীয় ভাবে কয়েকবার শালিসও করা হয়েছিল। এ বিষয়ে সাঁথিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, সোমবার প্রেমিক যুগলকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরন করা হয়েছে।