যৌন হয়রানির অভিযোগে ঈশ্বরদীর সেই শিক্ষক ঢাকায় গ্রেফতার

কামাল সিদ্দিকী: ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে পাবনার ঈশ্বরদীর আলহাজ টেক্সটাইল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোজাম্মেল হককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। যৌন হয়রানির শিকার ওই শিশু শিক্ষার্থীর দায়ের করা মামলায় তিনি গ্রেফতার হলেন।

সোমবার (১৭ জুন) সকালে রাজধানীর শাহবাগ থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বাহাউদ্দীন ফারুকী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে ছাত্রীকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগে প্রধান শিক্ষক মোজাম্মেল হককে
সাময়িক অব্যহতি দিয়েছে স্কুল কর্তৃপক্ষ। এ ঘটনায় ওই ছাত্রী উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) আহম্মেদ হোসেন ভূঁইয়ার কাছে লিখিত অভিযোগ করেন। তদন্ত প্রতিবেদন ও শিক্ষককে কারণ দর্শানোর ভিত্তিতে রোববার (১৬ জুন) তাঁকে বরখাস্ত করা হয়।

স্কুল কর্তৃপক্ষ ও থানা সূত্রে জানা গেছে, ‘গত ২৫ মে দুপুরে স্কুল মাঠে ৮ম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী তার কয়েকজন বান্ধবীর সঙ্গে খেলা করছিল। ওই সময় প্রধান শিক্ষক মোজাম্মেল হক ওই ছাত্রীকে ডেকে নিয়ে তাকে বিভিন্ন ধরনের অশ্লীল ও আপত্তিকর কথাবার্তা বলে শরীরের বিভিন্ন স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেন। পরে তার বান্ধবীরা এগিয়ে এলে প্রধান শিক্ষক তাকে ছেড়ে দিয়ে দ্রুত স্থান ত্যাগ করেন।’

বিষয়টি জানাজানি হলে স্থানীয় প্রভাবশালীরা ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে দেওয়ার চেষ্টা করে ব্যর্থ হন। পরে ওই ছাত্রী নিজেই বাদী হয়ে ঈশ্বরদী থানায় একটি যৌন হয়রানির মামলা করে। মামলার পর থেকেই অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক গা ঢাকা দিয়েছিলেন।

স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও উপজেলা মহিলা লীগের সভানেত্রী কামরুনাহার শরীফ বলেন, তাঁর কারণে স্কুলের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হয়েছে। তাই নিয়মমাফিক তাঁকে সাময়িক অব্যহতি দেওয়া হয়েছে।