রংপুর-৩ আসনের উপ-নির্বাচনে সাদা মাটা ভাবে চলছে প্রচারণা

জয়নাল আবেদীন: রংপুর-৩ আসনের উপ-নির্বাচনে সাদা মাটা ভাবে চলছে প্রচারণা। প্রার্থীদের নেই তেমন দৌড় ঝাপ। প্রতীক বরাদ্দের ১০ দিন অতিবাহিত হওয়ার পরও রংপুর সিটি কর্পোরেশন ও সদর উপজেলার কোথাও তেমন দেখা যায়নি প্রার্থীদের ব্যানার পোস্টার। লাঙ্গল মার্কার পোষ্টার কিছু দেখা গেলেও , বিএনপি প্রার্থী রিটা রহমানের ধানের শীষ, এরশাদের ভাতিজা সতন্ত্র প্রার্থী আসিফ সাহারিয়ারের মটরগাড়িসহ অন্যান্ন তিন প্রার্থীর পোস্টার ব্যানার নেই বল্লেই চলে। সাধারণ ভোটাররা কিছুটা নিরব থাকলেও সচেতন মহলে চলছে রংপুর-৩ আসনের উপ-নির্বাচন নিয়ে চলছে নানান বিশ্লেষন। অনেকই হতাশ উন্নয়নের বিপরীতে চলা রংপুর নিয়ে। নগরীর ভোটাররা বলছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের বাসা রংপুরে থাকার পরও ভোটের উত্তাপ নেই । কারো মতে এটা হয়তো জাতীয় পার্টির ব্যর্থতা। উদ্যোগতা ফেরদৌসী পলি বলেন, এবার তো এরশাদ নেই। তার ছেলে সাদ এরশাদ আর তার ভাতিজা আসিফ শাহরিয়ার নির্বাচন করছে। তারা দুইজন একই পরিবারের হলেও তাদের প্রতীক ভিন্ন। আসিফ শাহরিয়ার স্থানীয় ও সাবেক এমপি হিসেবে পরিচিত। অন্যদিকে সাদ এরশাদ অপরিচিত হলেও এরশাদের ছেলে হিসেবে তিনি এখন সবার কাছে পরিচিত। তবে শেষ পর্যন্ত কে জিতবে তা বলা যাচ্ছে না। এদিকে সাদ এরশাদ কে সমর্থন জানিয়েছেন রংপুর চেম্বার অব কমার্স । ব্যবসায়িদের সংগঠনের নেতারা তার পক্ষে মাঠে নেমেছেন । উল্লেখ্য রংপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্য, প্রয়াত সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মৃত্যুতে শুন্য এই আসনে আগামী ৫ অক্টোবর ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। রংপুর সদর ও সিটি করপোরেশনের আংশিক নিয়ে গঠিত এ আসনের মোট ভোটার ৪ লাখ ৪২ হাজার ৭২ জন। এবারো এখানকার ১ শত ৭৫টি কেন্দ্রে ইভিএম-এ ভোট গ্রহণ করা হবে।