গোপালপুরে ছাত্রলীগ নামধারি দুবৃর্ত্ত ও খুনিদের শায়েস্তার দাবিতে আ.লীগের সংবাদ সম্মেলন

আব্দুল লতিফ তালুকদার: ছাত্রলীগ নামধারি সন্ত্রাসী, খুনি ও চিহ্ণিত মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন গোপালপুর উপজেলা আওয়ামীলীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগ।
শুক্রবার (২৭ সেপ্টেম্বর) দুপুরে উপজেলা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি করা হয়। লিখিত অভিযোগে বলা হয়, গোপালপুর-ভূঞাপুর থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য ছোট মনিরের উন্নয়ন কর্মকান্ডকে ব্যাহত এবং বিতর্কিত করার জন্য একটি মহল ষড়যন্ত্র করছেন। এতে মদদ দিচ্ছেন জেলা আওয়ামীলীগ নেতা এবং মুক্তিযোদ্ধা ফারুখ হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত সন্ত্রাসীরা। গত ১৫ সেপ্টেম্বর গোপালপুর উপজেলার হাদিরা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের বহিস্কৃত সহ-সভাপতি এবং মাদক ব্যবসায়ী ডেঞ্জার জুয়েল মাদক ব্যবসা নিয়ে কোন্দলে প্রতিপক্ষের হামলার শিকার হন। মাদক ব্যবসার বিষয়টিকে আড়াল করে ওই মহলের ইঙ্গিতে আহত ডেঞ্জার জুয়েল স্থানীয় সংসদ সদস্য ছোট মনির এবং উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শফিকুল ইসলামসহ ৯জনকে আসামী করে পরদিন টাঙ্গাইল আদালতে হত্যা চেষ্টার বানোয়াট অভিযোগ দায়ের করেন। বিজ্ঞ আদালত গত ২৬ সেপ্টেম্বর এক আদেশ বলে সংসদ সদস্য ছোট মনির এবং রফিকুল ইসলাম লাভলুর নাম খারিজ করে অপর সাত আসামীর বিরদ্ধে সমন জারি করেন।
সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্পাদক সাইফুল ইসলাম তালুকদার সুরুজ। উপস্থিত ছিলেন টাঙ্গাইল শহর আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহসভাপতি গোলাম কিবরিয়া বড় মনি, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক রফিকুল ইসলাম রঞ্জু, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহসভাপতি মির্জা আসিফ মাসুদ, উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক সোহানুর রহমান, গোপালপুর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মীর রেজাউল হক, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি প্রকৌশলী গিয়াস উদ্দীন প্রমুখ।