যশোরে উড়ন্ত ছিনতাইকারীর কবলে মা-শিশু!

বাংলাদেশ প্রতিবেদক: যশোরে উড়ন্ত ছিনতাইকারীরা (মোটরসাইকেল আরোহী ছিনতাইকারী) বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। প্রতিনিয়ত শহরের বিভিন্ন সড়কে ঘটছে ছিনতাইয়ের ঘটনা। শুক্রবার দুপুরে শহরের জেলা ও দায়রা আদালত মোড়ে উড়ন্ত ছিনতাইকারীর কবলে রিকশা থেকে কোলের শিশু সন্তানসহ রাস্তার ওপর ছিটকে পড়ে আহত হয়েছেন এক নারী।

আহতরা হলেন- মাগুরার শালিখা উপজেলার আঠারখাদা গ্রামের উত্ম বিশ্বাসের স্ত্রী দীপালী বিশ্বাস (৩০) ও তার ছেলে রিকো বিশ্বাস (৪)। আহতদের যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে যশোর কোতোয়ালি থানার ওসি মনিরুজ্জামান বলেন, ঘটনাস্থল থেকে সিসি ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ করা হয়েছে। অপরাধীদের সনাক্তের চেষ্টা চলছে। এছাড়া শহরের উড়ন্ত ছিনতাইয়ের ঘটনা প্রতিরোধে পুলিশ তৎপর রয়েছে। বিভিন্ন সময়ে ছিনতাইকারী আটক করে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

আহত দীপালীর ভাই মিঠুন বিশ্বাস জানান, বোন দীপালী ও দুই ভাগনে রিকো ও আপনকে নিয়ে যশোরের মনিরামপুর উপজেলার রাজগঞ্জে বাবার বাড়ি থেকে বোনের শ্বশুরবাড়ি মাগুরায় তাকে পৌঁছে দিতে যাচ্ছিলেন। জজ আদালত মোড়ে পৌঁছালে মোটরসাইকেলে আসা দুই ছিনতাইকারী তার বোনের হাতের ব্যাগ ধরে টান দেয়।

এ সময় তার বোন ও ছোট ভাগনে রিকো চলন্ত রিকশা থেকে ছিটকে পড়ে গুরুতর আহত হয়। এ সময় তাদের চিৎকারে পথচারীরা এগিয়ে এলে ছিনতাইকারীরা পালিয়ে যায়। মিঠুন বিশ্বাস বলেন, তার ভাগনের মাথায় আঘাত লেগেছে। তার বোন হাত ও পায়ের হাঁটুতে মারাত্মক জখম হয়েছেন।

যশোর জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক কাজল মল্লিক জানান, আঘাত গুরুতর হলেও তারা শঙ্কামুক্ত।

শুধু দীপালী বিশ্বাস নয়, তার মত অনেকেই প্রায়ই উড়ন্ত ছিনতাইকারীর কবলে পড়ছেন। এর আগে ১০ সেপ্টেম্বর রাত ৯টার দিকে যশোর পৌরসভার সামনে উড়ন্ত ছিনতাইকারীরা উষা আক্তার (২১) নামে আরও এক রিকশা আরোহী নারীর ব্যাগ ছিনিয়ে নিয়ে যায়। এ সময় তিনিও রিকশা থেকে পড়ে আহত হন।

এছাড়া গত ৮ আগস্ট তালবাড়িয়ায় এনজিও কর্মী অনুপমা বিশ্বাসের টাকা ভর্তি ব্যাগ ছিনতাই হয়। ১৯ আগস্ট রাতে শহরের ঈদগাহর সামনে সাহাবুদ্দিনের খান নাসিম নামে এক ব্যক্তির ব্যাগ উড়ন্ত ছিনতাইকারীরা নিয়ে যায়। এছাড়াও একইভাবে পথচারীর হাতের মোবাইল ফোন ছিনতাই হচ্ছে।