সাঁথিয়ায় বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অনশন

আব্দুদ দাইন: পাবনার সাঁথিয়ায় বিয়ের দাবিতে প্রেমিক লালচাঁদ খাঁ‘র বাড়িতে অনশন করছে তার প্রেমিকা (২৩)। ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার(১সেপ্টেম্বর)দুপুর থেকে সাঁথিয়া উপজেলার করমজা ইউনিয়নের শামুকজানি চকপাড়া গ্রামে। ভন্ড প্রেমিক লালচাঁদ (২৮) শামুকজানি গ্রামের রাহেদ খাঁ‘র ছেলে। সে ঢাকা ইউরোপিয়ান ইউনিভার্সিটি দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র। অনশনরত ঐ যুবতীর বাড়ি পাশর্^বর্তী বেড়া উপজেলায় । প্রেমিক সম্পর্কে মেয়েটির মামাত ভাই হয় বলে জানা যায়। সরেজমিনে শামুকজানি গ্রামে গেলে প্রেমিকা এ প্রতিবেদককে জানায়, লালচাঁদের সাথে তার দীর্ঘ ছয় বছরের সম্পর্ক। চার বছর আগে তার বাবা মা তাকে অন্যত্র বিয়ে দেয় এবং তার একটি ছেলে সন্তানের জন্ম হয়। বিয়ের পর থেকেই লালচাঁদ তাকে বিয়ে করবে বলে আশ্বাস দিয়ে এক বছর আগে সেখান থেকে তার বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটায়। এরপর লালচাঁদ প্রেমিকাকে নিয়ে বেড়ায় বাসা ভাড়া নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মত থাকতে শুরু করে। বাসা ভাড়া নিয়ে থাকা অবস্থায় লালচাঁদ মাঝে মধ্যে দুই একদিনের জন্য ঢাকায় ইউরোপিয়ান ইউনিভার্সিটিতে যাওয়া আসা করত। তার বাড়ির লোকেরা জানত সে ঢাকাতেই পড়াশুনা করছে। কয়েক মাস পর মেয়েটি তাকে বিয়ের জন্য চাপ দিলে লালচাঁদ বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানিয়ে টাল বাহানা শুরু করে। তাকে বিয়ে করলে তার বাবা মা তাঁকে ত্যাজ্যপুত্র করবে বলে লালচাঁদ সাফ জানিয়ে দেয়। গত বুধবার (২৬ আগষ্ট) সন্ধায় লালচাঁদ গোপনে ভাড়া বাসা থেকে পালিয়ে যায়। নিরুপায় হয়ে বিয়ের দাবিতে ১সেপ্টেম্বর থেকে লালচাঁদের বাড়িতে অনশন করছে সে। প্রেমিক লাঁলচাঁদ তাকে বিয়ে না করলে আত্মহত্যা করবে বলে ঘোষণা দেয় মেয়েটি। এ ব্যাপারে প্রেমিক লালচাঁদ এর সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তার মুঠোফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়। করমজা ইউপি চেয়াম্যান হোসেন আলী বাগচী বলেন, মেয়ে পক্ষের কেউ আসলে গ্রাম আদালতের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয় হবে। সাঁথিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি)আসাদুজ্জামান জানান, এ ব্যাপারে কোন অভিযোগ পেলে আইনী সহায়তা দেয়া হবে