বাংলাদেশ প্রতিবেদক: বরিশালে কারাভোগের ১৪ বছর পর মুক্তি পেয়ে নিজ পরিবারের চারজনকে কুপিয়েছে নুরু ডাকাত নামে এক ব্যক্তি।

বরিশালের হিজলা উপজেলার কোড়ালিয়া গ্রামের বাসিন্দা নুরু ডাকাত গুয়াবাড়িয়ার সীমানাসংলগ্ন মুলাদী উপজেলায় থাকে। নুরু সন্ধ্যার পর তার টার্গেটকৃত ব্যক্তিকে কুপিয়ে পালিয়ে যায়- এমন ঘটনায় এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে।

জানা যায়, নুরু জেল থেকে বের হয়ে প্রথমে কুপিয়েছেন আপন চাচাতো ভাই কাঞ্চন বাবুর্চিকে। এরপর আপন ভাই দুলাল বাবুর্চি ও তার স্ত্রী নিলুফার বেগমকে কুপিয়ে জখম করেছে। বৃহস্পতিবার (৩১ ডিসেম্বর) সন্ধ্যার পর স্থানীয় কাউরিয়া বাজারে কাঞ্চনের ছেলে শহীদ বাবুর্চিকে কুপিয়ে জখম করে নুরু।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, ২০-২২ বছর আগে নুরু বাবুর্চির নির্যাতনের শিকার হয়ে এলাকা ছেড়েছেন মাওলানা নজরুল ইসলাম ও তার পরিবার। ওই সময় নুরু বাবুর্চি দিনদুপুরে তার দাদা শ্বশুরের কান কেটে নিয়েছিল। তার বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে।

গুয়াবাড়িয়ার ইউপির চেয়ারম্যান শাহজাহান তালুকদার বলেন, নুরু ভয়ংকর লোক। অস্ত্র মামলায় ১৪ বছর কারাভোগ করে ২০২০ সালের জুলাইয়ে মুক্তি পেয়েছে। এরপরই সে একে একে চার প্রতিপক্ষকে কুপিয়ে জখম করেছে।

এ বিষয়ে হিজলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অসীম কুমার সিকদার বলেন, নুরু বাবুর্চিকে গ্রেফতারের চেষ্টা করছে পুলিশ।