তাবারক হোসেন আজাদ: দিনমজুর জাহাঙ্গির হোসেন (২৮)। স্ত্রী ও দুই ছেলেকে নিয়ে অভাবের সংসার। বিদেশ গিয়ে পরিবারকে ভালো কিছু দেয়ার প্রত্যাশা ছিলো তার। কিন্তু তা আর হলো না। সড়ক দুর্ঘটনায় চলে গেলেন না ফেরার দেশে। রোববার (৩১ জানুয়ারী) ভোরে রায়পুর-চাঁদপুর সড়কের চরপাতা মোস্তফার দোকানের সামনে দ্রুতগামি ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে জাহাঙ্গির নিহত ও চালকসহ চার যাত্রী গুরুতর জখম হয়। ঘাতক ট্রাক ও সিএনজি থানায় আটক রাখা হয়েছে।

আহতদের উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করেছেন স্থানীয় লোাকজন। নিহত জাহাঙ্গিরের লাশ ময়না তদন্ত না করেই রায়পুর সরকারি হাসপাতাল থেকে স্বজনদের কাছে সোপর্দ করে হাইওয়ে পুলিশ।

নিহত জাহাঙ্গির হোসেন জেলার কমলনগর উপজেলার চরলরেঞ্চ গ্রামের মৃত আবদুস সহিদ ও নুরজাহান বেগমের দ্বিতীয় সন্তান। আহতদের পরিচয় পাওয়া যায়নি।
এঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

নিহতের বড় ভাই ও মামা মাওঃ রফিক উল্লাহ জানান,দিনমজুর জাহাঙ্গির হোসেনের স্ত্রী ও দুই ছেলেকে নিয়ে অভাবের সংসার। বিদেশ গিয়ে পরিবারকে ভালো কিছু দেয়ার প্রত্যাশা ছিলো তার। গত বুধবার দুবাই যাওয়ার কথা রয়েছে। মেডিকেল শেষে চাঁদপুর হয়ে সিএনজিযোগে (যার নং-চাঁদপুর য-১১-৬২১৮) বাড়ীতে আসছিলেন। রায়পুর চরপাতা গ্রামের মোস্তফার দোকানের সামনে পৌঁছলে বিপরিত দিগ থেকে আসা ট্রাকের (যার নংঢাকা মেট্রো ট-১৪৯৬৭৮) মুখোমুখি সংঘর্ষে ঘটনাস্থলেই মারা যান জাহাঙ্গির। চালকসহ আহত অন্য ৪ যাত্রীকে দ্রুত সদর হাসপাতাল পাঠানো হয়।

স্থানীয় মোস্থা জানান, ‘দ্রুত স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় আমরা আহত চার জনকে সদর হাসপাতালে পাঠাই। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক একজনকে মৃত ঘোষণা করেন।’

লক্ষ্মীপুর হাইওয়ে কাউছার আহম্মেদ সত্যতা স্বীকার করে জানান, পরিবারের আপত্তিতে ময়না তদন্ত ছাড়াই জাহাঙ্গিরের লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তবে মামলার প্রকিয়া চলছে। সিএনজি ও ট্রাক থানায় আটক আছে। পলাতক ট্রাক চালককে আটকের চেষ্টা চলছে।