বাংলাদেশ প্রতিবেদক: মুন্সিগঞ্জের লৌহজং উপজেলার শিমুলিয়া ঘাট থেকে বুধবার (৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে এক প্রেমিক যুগলকে আটক করেছে পুলিশ। ফেসবুক ও মোবাইল ফোনে পরিচয়ের প্রেক্ষিতে তারা শিমুলিয়ায় আসেন।

প্রেমিকা মাদারীপুরের শিবচরের উপজেলার মির্জারচর মুন্সিকান্দি গ্রামের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী। প্রেমিক ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীবনগর উপজেলার মীরপুর গ্রামের মৃত আবুল বাশারের ছেলে কাঠমিস্ত্রি রাজু মিয়া (২৪)।

লৌহজং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর হোসাইন সময় সংবাদকে জানান, প্রেমিকা শিমুলিয়ার ঘাটে এসে প্রেমিককে খোঁজ করছিলেন। এমন সময় এলাকার এক নারীর সঙ্গে দেখা হয়ে যায়। প্রেমিকার কথা অসামঞ্জস্য মনে হলে এই নারী বিষয়টি তার মাকে এবং কাছাকাছি থাকা ট্রাফিক পুলিশকে অবহিত করেন। পরে ট্রাফিক পুলিশ এই প্রেমিকাকে আটক করে লৌহজং থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে। পুলিশ ফোন করে ঘাটে থাকা প্রেমিককে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। পরে শিবচর থেকে মা এসে মুচলেকা দিয়ে তার কন্যাকে পুলিশের কাছ নিয়ে যান।

একই সঙ্গে প্রেমিকের অভিভাবককেও খবর দেওয়া হয়েছে। প্রেমিক কাঠমিস্ত্রি রাজু মিয়া এখন লৌহজং থানায় আটক রয়েছেন। ওসি জানান, তাদের মধ্যে শুধু ফোনে এবং ফেসবুকেই যোগাযোগ ছিল। প্রথমবারের মতো সরাসরি যোগাযোগ করতে গিয়েই ধরা পড়ে যায়।

ওসি জানান, ১৮ বছরে আগে স্মার্ট ফোন ব্যবহারের এমন নানা রকম সমস্যা তৈরি হচ্ছে। ষষ্ঠ শ্রেণির এই ছাত্রী কিশোর বয়সেই জীবন বিপন্ন করতে চলছিল। এই কিশোরী হয়তো প্রতারিত হতে যাচ্ছিল। তবে কিশোরীর মা কোনোভাবেই মামলা করতে রাজি না হওয়ায় আইনি ব্যবস্থা নেওয়া যায়নি।