জয়নাল আবেদীন: দেশে পঞ্চম ধাপের পৌরসভা নির্বাচনে রংপুরের হারাগাছ পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে লড়াইয়ে নেমেছেন শিক্ষক ও ছাত্র। মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী হাকিবুর রহমান মাস্টার এবং তাঁরই ছাত্র আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী এরশাদুল হক এরশাদ স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে লড়ছেন। এতে দলীয় পরিচয়ের বাইরেও এখানে চলছে মর্যাদার লড়াই। ২৮ ফেব্রুয়ারী অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া এই পৌর নির্বাচনে বিএনপির মোনায়েম ফারুক ও ইসলামী আন্দোলন থেকে জাহিদ হোসেন। তবে ব্যাপক কোন্দল ও সাংগঠনিক দুর্বলতার কারণে এই পৌর সভায় প্রার্থী দিতে পারেনি জাতীয় পার্টি। আওয়ামীলীগ মনোনীত চলমান মেয়র প্রার্থী হাকিবুর রহমান পেশায় শিক্ষক ছিলেন। অপরদিকে মেয়র পদে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী এরশাদুল তার ছাত্র ছিলেন। তবে পৌরসভায় চারজনই ক্ষমতাবান হওয়ায় কেউ কাউকে ছাড় দিতে নারাজ। শেষ মুহূর্তের প্রচারণায়ও মাঠ দখলে রাখতে চাইছেন এ চার নেতা। ভোটাররা বলছেন, যিনি যোগ্য প্রার্থী এবং এলাকার উন্নয়ন করবেন তাকেই ভোট দেবেন । আওয়ামী লীগ প্রার্থী ও বর্তমান মেয়র হাকিবুর রহমান মাস্টার বলেন, হারাগাছ পৌরসভার ব্যাপক উন্নয়ন করেছি। এই পৌরসভার উন্নয়ন অব্যাহত রাখতেই জনগণ নৌকা মার্কায় ভোট দেবেন। আমি এই হারাগাছ এলাকার দীর্ঘদিন শিক্ষক ছিলাম। মেয়র পদে আমার সঙ্গে যে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হয়ে নির্বাচনে অংশ নিয়েছে সেতো আমার ছাত্র। আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী এরশাদুল বলেন, এই পৌরসভার সাধারন মানুষ আমাকে চায়।তাই তাদের জন্য আমি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছি। আমি নেত্রীকে দেখিয়ে দেবো প্রতীক ছাড়াও নির্বাচনে জয়লাভ করা যায় । বিএনপির প্রার্থী ফারুক বলেন, এখানে সুষ্টু নির্বাচন নিয়ে শঙ্কা আছে। কোনো দলীয় প্রভাব না খাটালে শতভাগ নিশ্চিত যে, জয় বিএনপি প্রার্থীরই হবে। ২৮ ফেব্রুয়ারী হারাগাছ পৌর সভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডের ২০টি কেন্দ্রে ইলেকট্রিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে ভোট দিবেন ভোটাররা। এ পৌরসভায় মোট ভোটার ৪৯ হাজার ১৭ জন। এর মধ্যে নারী ভোটারের সংখ্যা ২৫ হাজার ৩২৪ এবং পুরুষ ভোটার ২৩ হাজার ৬৯৩ জন ।এ নির্বাচনে ৪ মেয়র প্রার্থী ছাড়াও কাউন্সিলর পদে ৪৮ ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ১০ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। একার বয়জষ্ট ভোটারগণ বলছেন হামাক তোমরা মেশিন চিনি দেও ক্যামন করি মেশিন দিয়া ভোট দেয় হামাক কাও শিখি দেয় নাই । উল্লেখ্য বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ইভিএম মেশিন সংক্রান্ত কোন প্রশিক্ষণের ব্যবস্থাই করেননি স্থানীয় নির্বাচন কমিশন । তবে ভোটের আগের মগ ভোটের আয়োজন করেছেন বলে জানা গেছে ।

Previous articleরংপুরে নকল প্রসাধনি কারখানায় অভিযান: ৫ লাখ টাকার মালামাল উদ্ধার
Next articleতামিমার দাবিকে ‘অস্বীকার’ করল মেয়ে তুবা
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।