জয়নাল আবেদীন: রংপুর মহানগরীতে দু’টি নকল প্রসাধনি কারখানায় পৃথক অভিযান চালিয়ে ৫ লাখ টাকা মূল্যের মালামাল উদ্ধার করা হয়েছে। এতে নকল ওই দুই কারখানার মালিককে ৩৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। নগরীর শালবন মিস্ত্রিপাড়া ও কেরানীপাড়া স্টাফ কোয়ার্টার এলাকায় এ অভিযান পরিচালনা করে জেলা প্রশাসন ও গোয়েন্দা পুলিশ। মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার উত্তম প্রসাদ পাঠক জানান নগরীর শালবন মিস্ত্রিপাড়া ও কেরানীপাড়া স্টাফ কোয়ার্টার এলাকায় ভেজাল বিরোধী অভিযান পরিচালনা করা হয়। এসময় একটি ভাড়া বাড়ি থেকে বিপুল পরিমাণ নকল প্রসাধনী সামগ্রী উদ্ধার করা হয়। পরে রংপুর জেলা প্রশাসনের নির্বাহি ম্যাজিস্ট্রেট তনুকা ভৌমিক নকল প্রসাধনী উৎপাদন ও বাজারজাত করার অভিযোগ ভোক্তা অধিকার আইনে রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলার বৈরাতিহাট গ্রামের ফয়জার রহমানের ছেলে মেহেদী হাসানকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৭ দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও একই অভিযোগে তারাগঞ্জ উপজেলার হাড়িয়ারকুটি গ্রামের আব্দুস সাত্তারের ছেলে মিজানুর রহমানকে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ড আদেশ দেন।অভিযানে নকল জনসন প্রসাধনী যাহাতে নিজেদের তৈরি লেবেল লাগানো বেবি সোপ, বেবি ওয়েল, বেবি পাউডার, বেবি লোশন, অলিভ ওয়েল, বেবি সেম্পু এবং ক্লিন এন্ড ক্লিয়ার উদ্ধার করা হয়।এছাড়াও নকল কুমারিকা ও ডাবর আমলা তেল, নকল ভিট, ভিট হেয়ার রিমুভার, নকল শিশা তেলসহ বিভিন্ন লেভেল স্টিকার জব্দ করা হয়। যার আনুমানিক মূল ৫ লাখ টাকা। যা পরবর্তীতে ধ্বংস করা হয় অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার আরও বলেন, সকল ধরনের অবৈধ কার্যক্রম এবং মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণে অভিযান অব্যাহত থাকবে।

Previous articleমাদারীপুরে প্রেমিকার বাড়ির সামনে গাছ থেকে প্রেমিকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার
Next articleরংপুরের হারাগাছ পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে লড়াইয়ে নেমেছেন শিক্ষক ও ছাত্র
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।