ফজলুর রহমান: চাষাবাদের কাজে ব‌্যবহারের ট্রাক্টর ও নসিমন দাপিয়ে বেড়াচ্ছে রংপুরের পীরগাছা উপজেলা সদরসহ গ্রাম-গঞ্জের সড়কে। পথচারী ও স্থানীয় সচেতন মহল বলছে, এসব বাহনের চালকদের কোনো ড্রাইভিং লাইসেন্স কিংবা প্রশিক্ষণ নেই। ফলে তারা চাষাবাদের কাজে ব‌্যবহারের ট্রাক্টর-নসিমনে যাত্রী ও পণ‌্য নিয়ে বেপরোয়া গতিতে সড়কে ছুটে চলছেন। রোড পারমিটশূন‌্য এসব বাহনের কারণে সড়কে বাড়ছে দুর্ঘটনা। এসব দুর্ঘটনায় কেউ কেউ পঙ্গুত্ব বরণ করছেন আবার কেউ হারাচ্ছেন প্রাণ। উপজেলার সদরের চৌরাস্তার মোড়, পীরগাছা সরকারি কলেজ গেট, চৌধুরাণী বাজার, পাওটানাহাট, তাম্বুলপুর বাজারের মেডিকেল মোড় ঘুরে দেখা গেছে, বালু, মাটি আর ইট বোঝায় করে ট্রাক্টরগুলো বেপরোয়া গতিতে চলছে। এতে পথচারীরা আতঙ্কিত হয়ে পড়ছেন। উপজেলা কদমতলী মোড়ে মোটরসাইকেল চালক মোস্তফা মিয়ার সাথে কথা হলে তিনি জানান, ট্রাক্টর ও নসিমনের অত্যাচারে বাইক নিয়ে রাস্তায় বের হলেই বিপদ। এসব বাহনচালকের কোনো প্রশিক্ষণ নেই। যখন-তখন দুর্ঘটনায় পড়তে পারেন পথচারী ও অন‌্য বাহনের যাত্রীরা। গত মঙ্গলবার(১মার্চ) উপজেলার উত্তর তাম্বুলপুর গ্রামের আলম বাদশা নামের এক ট্রাক্টর শ্রমিক ট্রাক্টরের চাপায় নিহত হয়েছেন। পথচারী মকবুল হোসেন বলেন, দূর থেকে ট্রাক্টরগুলো এত বিকট শব্দ করে ধেয়ে আসে, তাতে খুব ভয় লাগে। বাচ্চাদের স্কুলে পাঠালে সব সময় ভয়ে ভয়ে থাকতে হয়। ট্রাক্টরচালক শামসুল মিয়ার নিকট লাইসেন্স আছে কিনা জানতে চাইলে বলেন, আমার কোনো লাইসেন্স নেই। গাড়ি চালানো শিখেছি পেটের দায়ে গাড়ি চালাচ্ছি। নসিমনচালক আশরাফুলের সাথে কথা হলে তিনি জানান, গাড়ি বা আমার কোনো কাগজ নেই। বেশি দূর যাই না। গরুবোঝায় করে উপজেলার বিভিন্ন হাটে যাই। এ বিষয়ে পীরগাছা উপজেলা নির্বাহী অফিসার শেখ শামসুল আরেফীন এর সাথে কথা হলে তিনি জানান, বেপরোয়া ভাবে চলাচলকারী ট্রাক্টর গুলো বন্ধে প্রয়োজনী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Previous articleরায়পুরে ডাকাতিয়া নদীর উপর ব্রীজ পারাপারে গ্রামবাসীদের দুর্ভোগ
Next articleরংপুরে তামাক চাষিদের অনশন
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।