কামাল সিদ্দিকী: পাবনায় ইছামতি নদীর দুইপারে বৈধ বসতি দাবিদারদের উচ্ছেদ প্রক্রিয়ার প্রতিবাদে কাফনের কাপড় পড়ে অনশন কর্মসূচি পালন শুরু হয়েছে। আজ সোমবার (২৯ মার্চ) সকাল দশটা থেকে শহরের আব্দুর হামিদ সড়কের এ আর শপিং কমপ্লেক্স এর সামনে এই কর্মসূচি পালন শুরু করেন উচ্ছেদ তালিকায় থাকা বৈধ বসতি দাবিদাররা। ইছামতি নদীপাড়ের বৈধ বসতিদের স্বার্থ সংরক্ষণ কমিটির ব্যানারে আয়োজিত অনশনে আন্দোলনকারীরা জানান, নদীর দুইপারের শতবর্ষ ধরে বৈধভাবে সরকারের খাজনা ও খারিজ দিয়ে বসবাসকৃত কয়েক হাজার মানুষ আজ উচ্ছেদের হুমকির মুখে। কোন প্রকারের নোটিশ বা আলোচনা ছাড়াই এই উচ্ছেদ কার্যক্রম চলানো হলে অপূরণীয় ক্ষতি হবে তাদের। তাদের দাবি, চার পুরুষের বৈধ বসতিদের কাগজপত্র দেখে এই উচ্ছেদ কার্যক্রম করা হোক। আর যদি নদীর খনন করার জন্য জায়গা প্রয়োজন হয় তাহলে ক্ষতিপূরন দিতে হবে সরকারকে। এই দাবি না মানা পর্যন্ত কর্মসূচী চলবে বলে জানান আন্দোলনকারীরা। উল্লেখ্য, পাবনা পৌর এলাকার মধ্য দিয়ে প্রবাহিত শতবর্ষের ঐতিহ্যবাহী ইছামতি নদী দীর্ঘদিন পর খনন হতে যাচ্ছে। এজন্য চলতি বছরের প্রথমদিকে প্রাথমিক উচ্ছেদ কার্যক্রম শুরু হয়। সীমানা নির্ধারণ ও আদালতে মামলা প্রক্রিয়াধীন থাকার কারণে বন্ধ রাখা হয় নদী খনন কাজ। সম্প্রতি সরকারের নদী রক্ষা কার্যক্রমের অংশ হিসাবে পাবনা পানি উন্নয়বোর্ড, জেলা প্রশাসন ও পাবনা পৌরসভার সমন্বয়ে এই নদী খনন কাজ আবারো শুরু হতে যাচ্ছে। আগামী ৩১ মার্চ নদীর দুইপাড়ে অবৈধ স্থাপণা উচ্ছেদ শুরুর কথা রয়েছে। এর আগে ২০১৯ সালের ২৩ ডিসেম্বর ইছামতি নদীর দুই পাড়ে প্রথম দফায় ৮০টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে ৫ একর সরকারি সম্পত্তি উদ্ধার করা হয়েছে।

Previous articleকরোনায়কালে বিশেষ অবদানের জন্য রংপুরে স্বাস্থ্য সেবায় নিয়োজিত ৫ জনকে সম্মাননা প্রদান
Next articleরংপুরের পীরগাছায় ৬৬ লাখ টাকায় দায়সারা খনন
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।