বাংলাদেশ প্রতিবেদক: গাইবান্ধায় জেলা আওয়ামী লীগের উপ দপ্তর সম্পাদক মাসুদ রানার বাড়ি থেকে হাসান আলী নামে একজন জুতা ব্যবসায়ীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় মাসুদ রানাকে আটক করা হয়েছে।

পাওনা টাকার জন্য টানা এক মাস ওই ব্যবসায়ীকে আটকে রাখা হয় বলে অভিযোগ করেছেন হাসান আলীর পরিবারের সদস্যরা।

হাসান আলীর স্ত্রী বিথী বেগমের অভিযোগের পর ব্যবসায়ী হাসানকে উদ্ধার করলেও আবারও মাসুদ রানার জিম্মায় দেয় পুলিশ। তবে থানা থেকে নিজ বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার বিষয়টি সময় সংবাদের কাছে স্বীকার করেছেন অভিযুক্ত। এ ব্যাপারে কথা বলতে রাজি হয়নি পুলিশ।

শনিবার (১০ এপ্রিল) সকালে গাইবান্ধা সদরের বল্লমঝাড় ইউনিয়নের নারায়নপুর এলাকায় জেলা আওয়ামী লীগের উপ দপ্তর সম্পাদক মাসুদ রানার বাড়ি থেকে উদ্ধার করা হয় শহরের জুতা ব্যবসায়ী হাসান আলীর মরদেহ।

স্থানীয়রা জানান, গাইবান্ধা জেলা আওয়ামী লীগের উপদফতর সম্পাদক মাসুদ রানা সুদে টাকা লেনদেন করতেন। হাসান আলীর কাছে তার সুদের টাকা পাওনা ছিল। ওই টাকা আদায়ের জন্য হাসানকে নিজ বাড়িতে আটকে রেখেছিলেন মাসুদ রানা। টাকা পরিশোধ করতে না পেরে হাসান আলী আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছেন বলে দাবি তাদের।

এদিকে ঘটনাস্থল মাসুদ রানার বাড়িতে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাহফুজার রহমান ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের সাথে এসব ব্যাপারে কথা বলতে চাইলে তারা রাজি হননি।

অন্যদিকে শনিবার দুপুরে আওয়ামী লীগ নেতা মাসুদ রানাকে তার বাড়ি থেকে হ্যান্ডকাপ ছাড়া আটক করে থানায় নিয়ে যাওয়ার সময় হামলা চালায় স্থানীয় জনতা। পরে হ্যান্ডকাপ ও হেলমেট পরিয়ে তাকে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। এব্যাপারে শনিবার বিকেল পর্যন্ত থানায় মামলা হয়নি।

Previous articleটিকা নেওয়ার পর করোনায় আ.লীগ নেতার মৃত্যু
Next articleদুই জায়গা থেকে বেশি ছড়াচ্ছে করোনা
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।