আব্দুল লতিফ তালুকদার: চির নিদ্রায় শায়িত হলেন টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল হালিম এডভোকেট। করোনায় আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার (৩০ জুলাই) সকাল সাড়ে ১০ টায় ঢাকার শ্যামলী স্প্যাশালাইসড হাসপাতালে তিনি মারা যান। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭০ বছর।

পরিবার সূত্রে জানা যায়, গত (৪ জুলাই) রবিবার চেয়ারম্যান আব্দুল হালিম তার স্ত্রী নারগিস আক্তারসহ স্ব-পরিবার করোনা আক্রান্ত হন। সেসময় রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়া শুরু করেন। এর আগে তিনি তার স্ত্রীসহ গেল ২০ ফেব্রুয়ারি ও ২০ এপ্রিল ভূঞাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে করোনার ২ ডোজ টিকা গ্রহন করেন। তিনি মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়ে ছিলেন। পরিবারিকভাবে তিনি আওয়ামীলীগের রাজনীতি করতেন। তিনি দীর্ঘদিন ভূঞাপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ছিলেন। আওয়ামীলীগের মনোনয়নে তিনি পরপর দুইবার উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়েসহ অসংখ্য গুনগ্রাহি রেখে যান। তার মৃত্যুর সংবাদে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। আজ বাদ আসর ভূঞাপুর সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ ও বাদ মাগরিব তার নিজ

গ্রাম সাফলকুড়ায় দ্বিতীয় জানাযা শেষে দাফন করা হয়। জানায় উপস্থিত ছিলেন, স্থানীয় সাংসদ ছোট মনির, পুলিশের অতিরিক্তি আইজিপি খন্দকার গোলাম ফারুক,উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোছা. ইশরাত জাহান, মেয়র মাসুদুল হক মাসুদ, টাঙ্গাইলের বিভিন্ন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বৃন্দ, বীর মুক্তিযোদ্ধা বৃন্দ, জেলা, উপজেলার আ'লীগের নেতৃবৃন্দ ও বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। জানাযা নামাজের আগে বীর মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে তাকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদা প্রদান করা হয়। তাঁর মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় কৃষি মন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাকসহ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় নেত্রীবৃন্দ।

Previous articleতাহিরপুর সীমান্তে পৃথক অভিযানে স্টীলবডি নৌকাসহ ভারতীয় কয়লা ও বালু আটক
Next articleলাকসামে ২ লাখ টাকার গাঁজাসহ ৩ মাদক ব্যবসায়ী আটক
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।