আবু বক্কর সিদ্দিক: গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে কেমিকো ফার্মাসিউটিক্যাল’র প্রডাকশন অফিসার (পিও) জুলফিকার হাবীবের মোটরসাইকেল ছিনতাইয়ের অভিযোগে এমদাদুল হক নামে এক ভূয়া ডাক্তারকে গ্রেপ্তার করেছে।

থানা সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার দুপুরে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ভূয়া এমবিবিএস ডাক্তার এমদাদুল হককে আদালতে পাঠানো হয়। এরআগে সোমবার দিনগত গভীর রাতে থানার নিরস্ত্র পুলিশ পরিদর্শক (ওসি-তদন্ত) বুলবুল ইসলাম গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে অভিযান চালান। এতে সুন্দরগঞ্জ-গাইবান্ধা আঞ্চলিক মহাসড়কে জেলা সদরে অবস্থিত মৌজা মালিবাড়ি নামক স্থান থেকে ভূয়া ডাক্তার এমদাদুল হককে গ্রেপ্তার করেন। গ্রেপ্তারকৃত এমদাদুল হক কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী উপজেলার চওড়া গ্রামের মৃত ময়েন উদ্দিনের ছেলে। সে বিগত ১০ বছর ধরে সুন্দরগঞ্জ উপজেলার শোভাগঞ্জ, মীরগঞ্জ, বামনডাঙ্গা, ছাইতানতলা, ডোমেরহাট, মন্ডলেরহাট, সীচাবাজারসহ বিভিন্ন পয়েন্টে ঔষধ বিক্রেতাদের সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যমে নিজেকে এমবিবিএস ডাক্তার হিসেবে প্রচার-প্রচারণার মাধ্যমে চিকিৎসার নামে প্রতারণা করে আসছিলেন। এরই এক পর্যায়ে গত ৩১ জুলাই কেমিকো ফার্মাসিউটিক্যাল’র (ঔষধ কোম্পানীর) পিও জুলফিকার হাবীবের মোটরসাইকেল নিয়ে পালিয়ে যান। তখন থেকে নানাভাবে টালবাহনা করতে থাকলে জুলফিকার হাবীব থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। ঘটনার ১০ দিন পর সোমবার (৯ আগস্ট) দিনগত গভীর রাতে মৌজা মালিবাড়ি নামক বাজারে পৌঁছিলে জনতা ভূয়া ডাক্তার এমদাদুল হককে আটক করেন। জানতে পেয়ে থানা পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার পূর্বক আদালতে প্রেরণ করেন। থানার নিরস্ত্র পুলিশ পরিদর্শক (ওসি-তদন্ত) বুলবুল ইসলাম জানান, মোটর ছিনতাইসহ প্রতারণার অভিযোগে ভূয়া ডাক্তার এমদাদুল হকের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রুজু করা হতে পারে। থানা অফিসার ইনচার্জ আব্দুল্লাহিল জামান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

Previous articleসমন্বিত প্রচেষ্টায় করোনা পরিস্থিতি এখন অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে: সেনাপ্রধান
Next articleশ্রীমঙ্গলে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের দায়ে ইউপি সদস্যের কারাদণ্ড
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।