বাংলাদেশ প্রতিবেদক: মুলাদীতে বোনের অনৈতিক কাজে বাঁধা দেওয়ায় ভাইকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত বুধবার উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়নের সাহেবেরচর গ্রামের মৃত সুলতান মৃধার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

সুলতান মৃধার মেয়ে সাহিদা তার আপন ভাই রাসেল মৃধাকে পিটিয়ে আহত করেছেন। এঘটনায় এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। গত বৃহস্পতিবার বিকালে স্থানীয় ইউপি সদস্যের নেতৃত্বে দুই শতাধিক নারী পুরুষ সাহিদার বাড়িতে গিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করায় উত্তেজনা দেখা দেয়। রাসেল মৃধা জানান, কয়েক বছর আগে তার বোনের বিয়ে হয়। বিয়ের পর স্বামীর সাথে ঝামেলা হওয়ায় তালাকপ্রাপ্ত হলে ৪/৫ বছর ধরে সাহিদা পিতার বাড়িতে ঘর করে স্থায়ী ভাবে থাকছেন। কয়েক মাস ধরে তাদের বাড়িতে এলাকার বখাটে যুবকদের আনাগোনা দেখা দিলে বিষয়টি নিয়ে সন্দেহ দেখা দেয়। বিষয়টি নিয়ে রাসেল মৃধা তার বোনের সাথে কথা বলেন এবং যুবকদের বাড়িতে আসতে নিষেধ করেন। এতে তার বোন ক্ষিপ্ত হন। তখনই তিনি তার ভাইকে দেখে নেওয়ার হুমকি দেন। বুধবার সকালে জনৈক যুবক বাড়িতে আসলে ভাই-বোনের মধ্যে কথার কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে সাহিদা তার মাকে নিয়ে পিটিয়ে ভাইকে পিটিয়ে মারাতœক আহত করেন। রাসেলের ডাকচিৎকারে স্থানীয়রা এসে তাকে উদ্ধার করে ওই দিন বিকালে মুলাদী হাসপাতালে ভর্তি করেন। এঘটনায় রাসেল বাদী হয়ে সাহিদার বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দেন। এছাড়া অনৈতিক কাজ বন্ধের দাবী জানিয়ে তার মামা শাহ আলম মিয়া মুলাদী থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। সাহিদা বেগম অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, পিতার বাড়িতে আশ্রয় নেওয়ার বিষয়টি ভাই ও স্বজনরা ভালো চোখে দেখছে না। তাই আমাকে পিতার বাড়ি থেকে উচ্ছেদ করতে মিথ্যা অভিযোগ করছে। এব্যাপারে মুলাদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস.এম মাকসুদুর রহমান জানান, বিষয়টি তদন্তের জন্য পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। সত্যতা পেলে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Previous articleপীরগাছায় ইউনিয়ন পর্যায়ে মৎস চাষ প্রকল্পের প্রদর্শনী
Next articleশাহজাদপুরে বাস ও মোটরসাইকেল মুখোমুখি সংঘর্ষে ২ জন নিহত
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।