আব্দুল লতিফ তালুকদার: সরকারী ঘোষণায় শতভাগ বিদ্যুৎতায়িত উপজেলা টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর হলেও, উপজেলার গোবিন্দাসী স্কুল রোডে দীর্ঘদিন ধরে জরাজীর্ণ কভারবিহীন তার জোরাতালি দিয়ে বাঁশের খাম্বা ও মরা গাছের সাথে লাগিয়ে চলছে বিদ্যুত সংযোগ।

সংযোগ তার মাথা ছুঁই ছুঁই। বার বার বলা হয়েছে ওই এলাকার বাসিন্দা বিদ্যুৎ অফিসে কর্মরত বুলবুল মিয়াকে। তিনি অফিসে জানিয়ে লাইনটি সংস্কারের আশ্বাসও দিয়েছেন অনেক বার। তারপরও লাইনটি সংস্কারে উদ্যোগ নেয়নি কর্তৃপক্ষ। বুধবার রাত ১০ টার দিকে জরাজীর্ণ লাইনে আগুন ধরে তার ছিঁড়ে পড়েছে রাস্তার ওপর। ওই এলাকার গ্রাহকদের পক্ষ থেকে মুঠোফোনে জানানো হয় উপসহকারী প্রকৌশলী মেরাজকে। তিনি গ্রাহককে দরখাস্ত দেয়ার কথা বলেন। পরে দেখে এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিবেন। ওই এলাকার গ্রাহকরা জানান, লাইনটি দীর্ঘদিন ধরে জরাজীর্ণ। যে কোন সময় ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা।

বিষয়টি বিদ্যুৎ অফিসে কর্মরত বুলবুল মিয়াকে বার বার জানানো হলেও তিনি শুধু আশ্বাসই দিয়ে গেছেন। কোন কাজ হয়নি। লাইনের তার মাথা ছুঁই ছুঁই। যে কোন সময় ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা। আজ রাত ১০টার দিকে তার ছিঁড়ে মাটিতে পড়ে গেলে অফিসে জানানো হলে দরখাস্তের কথা বলেন উপসহকারী প্রকৌশলী মেরাজ। দরখাস্ত দেয়ার পর ব্যবস্থা নিবে তারা। এর আগে দুর্ঘটনা ঘটলে এর দায় কে নেবে? এমন প্রশ্ন গ্রাহকদের। এদিকে লাইন মাটিতে পড়ে থাকার বিষয়টি বিদ্যুৎ অফিসে কর্মরত স্থানীয় বাসিন্দা বুলবুল মিয়া এসে মাটিতে পড়ে থাকা তার গুছিয়ে রাখেন। দুর্ঘটনা এড়াতে লাইনটি দ্রুত সংস্কার করা জরুরি বলে দাবি গ্রাহকদের। এ বিষয়ে ভূঞাপুর বিদ্যুৎ বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগের উপসহকারী প্রকৌশলী মেরাজের সাথে কথা হলে তিনি জানান, লাইনের বিষয়ে দরখাস্ত দিলে পরে দেখে এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Previous articleদেশে করোনায় আরও ৫১ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১ হাজার ৮৬২
Next articleনোয়াখালীতে মাদক ব্যবসার নিয়ন্ত্রণে গোলাগুলি, গুলিবিদ্ধ ১
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।