এস কে রঞ্জন: পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলায় ২০১১ সালে ২নং টিয়াখালী ইউনিয়ন নির্বাচনে নৌকা প্রতিক নিয়ে বিপুল ভোটের ব্যাবধানে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে বিজয়ী হয় বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কলাপাড়া উপজেলা শাখার সভাপতি মো.মাহমুদুল হাসান সুজন মোল্লা।

২০১৬ সালে ২নং টিয়াখালী ইউনিয়ন নির্বাচনে সর্বাধিক কাউন্সিলর ভোট পেয়েও মনোনয়ন না পেয়ে দলের বিপক্ষে বিদ্রহী প্রার্থী হয়নি। চেয়ারম্যান না থেকেও অসহায় মানুষদের পাশে থেকে বিভিন্ন সামাজিক,রাজনৈতিক কর্মকান্ড এবং বিভিন্ন দিবসকে কেন্দ্র করে সক্রিয় ভ’মিকা পালন করেছেন। গত ৭ অক্টোবর বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কলাপাড়া রিপোর্টার্স ক্লাবের মিলনায়তনে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় করেন। মতবিনিময় কালে আসন্ন ২ নং টিয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পাবার আশাবাদ ব্যক্ত করেন। সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে কলাপাড়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও সাবেক সফল চেয়ারম্যান মো.মাহমুদুল হাসান সুজন মোল্লা বলেন, ২০১৬ সালে টিয়াখালী ইউনিয়ন নির্বাচনে সর্বাধিক কাউন্সিলর ভোট পেয়েও আমি মনোনয়ন পাইনি দলের নিয়ম মেনে বিদ্রহী প্রার্থী হয়ে নির্বাচন করিনি। আসন্ন নির্বাচণে অবাধ সুষ্ঠ নিরপেক্ষ ভোটের দাবিতে আমি সকলের সহযোগিতা চাই। আমি জনগনের বন্ধু হতে চাই । ২ নং টিয়াখালী ইউনিয়নের প্রতিটি মানুষ এখন পরিবর্তন চায়। তিনি আরো বলেন,রাজনীতির মাঠে থেকে চার দলীয় জোট বিএনপি জামায়াত সরকারের ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে আন্দোলন সংগ্রাম করতে গিয়ে বহু মামলা ও হামলার শিকার হয়েছি। আওয়ামীলীগের দু:সময়ে ছাত্রলীগের কর্মী হিসাবে সংক্রিয় ভূমিকা পালন করেছি। আমি চেয়ারম্যান হলে টিয়াখালী ইউনিয়নের সুইজগেট ,কালভার্ট,খাল ইজারা মুক্ত করব। বাল্যবিবাহ ,সন্ত্রাস ও মাদক মুক্ত সমাজ গড়ব এবং শিক্ষিত আধুনিক ইউনিয়ন গড়ে তুলব। পায়রা সমুদ্র বন্দর কর্তৃক অধিগ্রহন কৃত জমির মালিকদের যাতে কোন হয়রানি হতে না হয় পরিষদের মাধ্যমে সেই ব্যাবস্থা করব। ২০১১ সালে আমি চেয়াম্যান নির্বাচিত হয়ে ২নং টিয়াখালী ইউনিয়নের সন্ত্রাস,চাঁদাবাজি, ভূমিদস্যু,শালিস বানিজ্য বন্ধ ও সরকারি খাল দখল মুক্ত করি। আমার নিজ এলাকায় মোল্লাবাড়ি পূর্ব টিয়াখালী প্রাথমিক রেজিস্টার্ড বিদ্যালয় ও আলহাজ¦ মাহবুবুর রহমান রেজিস্টার্ড প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করি। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান দুইটি সরকারিকরণ করেন। এছাড়া আমি নিজ এলাকায় পূর্ব টিয়াখালী কাদরিয়া দ্বীনিয়া কমপ্লেক্স,শিকদার বাড়ি কাদরিয়া দ্বীনিয়া কমপ্লেক্স ও জামে মসজিদ প্রতিষ্ঠা করি। র্পূব টিয়াখালী এম,আলী ইবতেদায়ী মাদ্রাসা পুনরায় চালু করি। সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ও সাবেক সফল চেয়ারম্যান ১৯৯৪ সালে কলাপাড়া উপজেলা শাখার ছাত্রলীগ সদস্য থেকে ছাত্র রাজনীতিতে হাতে খড়ি। এর পর ১৯৯৯ সালে সাংগঠনিক সম্পাদক, ২০০৩ সালে সাধারণ সম্পাদক, ২০১০ সালে সভাপতি নির্বাচিত হয়ে দক্ষতার সাথে সংগঠনের সকল কার্যক্রম সফলভাবে পালন করেন।

২০১১ সালে ২নং টিয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে সর্বাধিক ভোট পেয়ে জেলার সর্বকনিষ্ট চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। বর্তমানে বাংলাদেশ আওয়ামী যুব লীগের কলাপাড়া উপজেলা শাখার সভাপতি পদে প্রার্থী হয়ে আওয়ামীলীগের সকল রাজনৈতিক কর্মকান্ডে সক্রিয় ভ’মিকা পালন করে আসছে। এছাড়া করোনাকালীন সময় এলাকায় অসহায় মানুষর পাশে থেকে সাহায্য সহযোগিতা করেছেন। অতীতের অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে মানবতা জননী দেশ রতœ প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা’র নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত সোনারবাংলা গড়ার সংগ্রামে জীবন বাজী রেখে কাজ করে যাবেন বলে তিনি জানিয়েছেন। এ মতবিনিময় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা যুবলীগের বর্তমান সাংগঠনিক সম্পাদক শাহাজাদা মোল্লা,সাবেক ছাত্রলীগ নেতা সোহাগ মোল্লা,কলাপাড়া রিপোর্টার্স ক্লাবের সদস্যসহ টিয়াখালী ইউনিয়নের বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ।

Previous articleরংপুরে ট্রেনের টিকিট বিক্রির ৩৪ লাখ টাকা আত্মসাৎ, বুকিং মাস্টার কারাগারে
Next articleবাউফলে সারে ৬ কোটি টাকার অবৈধ জালসহ ২২ জেলে আটক
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।