বাংলাদেশ প্রতিবেদক: পাটুরিয়া ঘাটে আমানত শাহ ফেরিডুবির নবম দিনেও ফেরিটি উদ্ধারের কাজ শুরু হয়নি। পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে ফেরি স্বল্পতা ও ৫ নম্বর ঘাট বন্ধ থাকায় ফেরি পারাপার ব্যাপকভাবে ব্যাহত হচ্ছে। এ কারণে ঘাট এলাকায় পারের অপেক্ষায় রয়েছে ৭ শতাধিক যানবাহন।

এ অবস্থায় পারাপারের অপেক্ষায় থাকা যাত্রীদের ভোগান্তি বাড়ছে। ছুটির কারণেও সপ্তাহের শেষ দিন বৃহস্পতিবার ঘাট এলাকায় যানবাহনের চাপ বেশি দেখা যায়।

দেখা গেছে, দেশের দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলের প্রধান প্রবেশদ্বার মানিকগঞ্জের শিবালয় উপজেলার পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া রুটে আধ ঘণ্টার নৌরুটে সমস্যার কারণে পারাপারের জন্য পণ্যবাহী ট্রাক চালকদরেকে অপেক্ষা করতে হচ্ছে দুই থেকে তিন দিন পর্যন্ত।

বৃহস্পতিবার বাস, ট্রাক ও ছোট বড় গাড়ি মিলে কমপক্ষে সাত শতাধিক যানবাহন নৌরুট পারাপারের জন্য অপেক্ষমাণ রয়েছে বলে ফেরিঘাট কর্তৃপক্ষের সূত্রে জানা গেছে।

আব্দুর রহিম নামের এক ট্রাকচালক বলেন, বাস, জরুরি পণ্যবাহী ট্রাক ও ব্যক্তিগত ছোট গাড়ি দুই থেকে তিন ঘণ্টা অপেক্ষা করে নৌরুট পারাপারের সুযোগ পেলেও ট্রাকচালকদের অপেক্ষা করতে হচ্ছে দুই থেকে তিন দিন পর্যন্ত। আর দালালদের মাধ্যমে যারা বাড়তি টাকা দিয়ে টিকিট বুকিং দিচ্ছে তারা অল্প সময়ের অপেক্ষাতেই নৌরুট পার হবার সুযোগ পাচ্ছে বলে জানান তিনি।

Previous articleমুলাদীতে স্কুলছাত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু
Next articleগাজীপুরে দুই শিল্প গ্রুপের বিরোধে কোটি কোটি টাকার বিনিয়োগ ক্ষতির মুখে
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।