বাংলাদেশ প্রতিবেদক: ঠাকুরগাঁওয়ের রোড বাজারের খালপারায় চুল কেটে বিবস্ত্র করে এক কিশোরীকে নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনায় একজনকে আটক করেছে পুলিশ।

রোববার খালপাড়ার নিজ বাসা থেকে আটক হন আলম (৫২) নামে এক অভিযুক্ত। নির্যাতিত কিশোরী ওই এলাকার মৃত ইউসুব আলীর মেয়ে।

এ ঘটনা তুলে ধরে নির্যাতনের শিকার নুর বাণু জানায়, শনিবার রাতে আলমসহ আরো সাতজন নারী-পুরুষ মিলে কিশোরীকে বাসায় ডেকে নেয়। এর পরে তাকে বিবস্ত্র করে নির্যাতন করা হয়। একপর্যায়ে কিশোরীর মাথার সব চুল কেটে দেয় অভিযুক্তরা। তিনি কান্না করে বার বার ছেড়ে দেবার আকুতি জানালেও কর্ণপাত করেনি কেউ।

ওই কিশোরী এ ঘটনার বিচার চেয়ে বলেন, আমি কোনো দোষ করিনি। আমাকে অযথা ধরে
নিয়ে গিয়ে এভাবে মারধর করলো। আমার কাপড় ছিঁড়ে চুল কেটে দিলো। ওরা ওদের মেয়ের
সাথে অবৈধ সম্পর্কের অভিযোগ তুলেছে। কিন্তু একটা মেয়ের সাথে আরেকটা মেয়ের সম্পর্ক থাকাটা কিভাবে সম্ভব।

অভিযুক্ত আলম জানান, আমার মেয়ের সাথে তার অবৈধ সম্পর্ক রয়েছে। সেই জন্যে আমি মেয়ের বিয়ে দিতে পারছি না। তাই মেয়েটিকে ডেকে নিয়ে জিঙ্গাসাবাদ শুরু করি। কিন্তু মেয়েটি সব অস্বীকার করে আমার ওপরে গরম দেখাতে থাকে। তাই আমার মেয়ে আর প্রতিবেশী মোবারক আলী মেয়েটিকে চর-থাপ্পড় দিয়ে চুল কেটে দিয়েছে।

তবে একটা মেয়ের সাথে আরেকটা মেয়ের অবৈধ সম্পর্ক থাকা কিভাবে সম্ভব জানতে চাইলে তিনি জানান, তাকে মাঝে মাঝে জ্বীন ধরে।

বিষয়টিতে তীব্র নিন্দা জানিয়ে এর সুষ্ঠু বিচার দাবি করেছে এলাকাবাসী।

ওই এলাকার বাসিন্দা সালাম জানান, মেয়েটির বাবা নেই। মা-মেয়ে কাজ করে খায়। এভাবে
অদ্ভুত একটা দায় চাপিয়ে মেয়েটিকে বিবস্ত্র করে নির্যাতন করা ঠিক হয়নি।

ঠাকুরগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তানভীরুল ইসলাম জানান, বিষয়টি জানার পরেই আমি ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। ঘটনাস্থলে একজনকে পাওয়া গেলেও বাকিরা পালিয়ে গেছে। এই বিষয়ে মেয়ের মা থানায় এটি অভিযোগ দায়ের করেছে।

Previous articleবাস ভাড়া বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন জারি
Next articleটাঙ্গুয়ার হাওরে আটককৃত দুই লক্ষাধিক টাকার চটাজাল আগুনে পুড়ে ধ্বংস 
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।