বাংলাদেশ প্রতিবেদক: রাজশাহীতে এক তরুণী (১৭) ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। এ ঘটনায় অভিযুক্ত জারমান আলী (৬১) নামে এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে পুলিশে দিয়েছে স্থানীয়রা।

ভিকটিম কিশোরীকে শারীরিক পরীক্ষার জন্য রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেণ্টারে (ওসিসি) ভর্তি করা হয়েছে। অভিযুক্ত জারমান আলীকে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়েছে একই হাসপাতালে।

পুলিশ বলছে, প্রাথমিকভাবে ওই তরুণীকে ধর্ষণের সত্যতা পাওয়া গেছে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, নগরীর বিমানবন্দর থানার আওতাধীন তকিপুর এলাকার বাসিন্দা জারমান আলী শুক্রবার দুপুরের দিকে ওই তরুণীকে নিজ বাড়িতে ডেকে নেন। এ সময় বাড়িতে কেউ না থাকায় জোরপূর্বক তরুণীকে ধর্ষণ করেন জারমান। ধর্ষণ শেষে বাড়ি থেকে তরুণীকে বের করে দেয়ার সময় স্থানীয়দের সন্দেহ হয়। তাৎক্ষণিক স্থানীদের জিজ্ঞাসাবাদে জারমানের অসংলগ্ন কথাবার্তায় ধর্ষণের ঘটনাটি স্পষ্ট হয়। এ সময় জনাতা তাকে পিটিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেন। পরে চিকিৎসার জন্য তাকে রামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এছাড়া ভিকটিম তরুণীকে শারীরিক পরীক্ষার জন্য রামেক হাসপাতালের ওসিসিতে ভর্তি করা হয়েছে।

নগরীর বিমানবন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মশিউর রহমান এসব তথ্য নিশ্চিত করে গণমাধ্যমকে জানান, এ ঘটনায় ভিকটিমের বাবা জারমানকে আসামি করে থানায় মামলা করেছেন। এ মামলায় জারমানকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

ওসি জানান, প্রাথমিকভাবে ওই তরুণীকে ধর্ষণের সত্যতা পাওয়া গেছে। আজই অভিযুক্ত জারমানকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হবে।

Previous articleমুকসুদপুরে যুবতীর সাথে আওয়ামী লীগ নেতার আপত্তিকর ও অশ্লীল ভিডিও ফাঁস
Next articleকক্সবাজারে নারী পর্যটককে গণধর্ষণ: ধর্ষক আশিকের আস্তানা ছিল যতসব অপকর্মের কেন্দ্র
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।