বাংলাদেশ প্রতিবেদক: আশুলিয়া শিল্পাঞ্চলে এক পোশাক কারখানায় কর্মরত যুবতীকে রক্ত নেয়ার কথা বলে ঘুমের ইনজেকশন পুশ করে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাত ৮টায় মামলা করা হলে ওই কারখানার অ্যাডমিন অফিসার জাহাঙ্গীর আলমকে (৩২) গ্রেফতার করে পুলিশ। আশুলিয়া থানার ওসি (ইন্টিলিজেন্স) জামাল সিকদার এ ঘটনায় মামলা হওয়া এবং একজনকে আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

ভোক্তভোগীর অভিযোগ থেকে জানা যায়, গত ১৮ ডিসেম্বর তারিখে ভোক্তভোগী ওই নারী (১৯) আশুলিয়ার উত্তর বেরন এলাকায় অবস্থিত ইয়াগি বাংলাদেশ গার্মেন্টস লিমিটেড নামের ওই কারখানায় হেলপার হিসেবে চাকরি নেন। গত ২১ ডিসেম্বর রক্তের গ্রুপ পরীক্ষা করার জন্য ওই কারখানায় কর্মরত এক নারী তার রক্ত নেন। এরপর ২৩ ডিসেম্বর দুপুরের খাবারের জন্য বিরতি দিলে অন্যান্য শ্রমিকের ন্যায় ভোক্তভোগী নিজেও খেতে যাচ্ছিলেন। এমন সময় কারখানার এক নারী এসে আবার রক্ত লাগবে বলে নীচ তলার একটি কক্ষে নিয়ে যান।

ওই কক্ষে আগে থেকেই অ্যাডমিন অফিসার জাহাঙ্গীর আলমসহ আরো দু’জন পুরুষ ছিল। রক্ত নেয়ার নাম করে এ সময় ইনজেকশনের সিরিঞ্জের মাধ্যমে কৌশলে অজ্ঞান করার ইনজেকশন পুস করেন ওই নারী। পরে অজ্ঞান হয়ে পড়লে সেখানে অবস্থান নেয়া অ্যাডমিন অফিসার জাহাঙ্গীর আলমসহ অজ্ঞাতনামা আরো এক পুরুষ তাকে ধর্ষণ করে কারখানার কার্টুনের ওপর ফেলে রেখে চলে যান। প্রায় দু’ঘণ্টা পর জ্ঞান ফিরে এলে ভোক্তভোগী বুঝতে পারেন যে তাকে ধর্ষণ করা হয়েছে। এরপর তিনি বাসায় চলে যান এবং তার বাবা মাকে বিষয়টি খুলে বলেন। পরে তার বাবা-মাকে নিয়ে কারখানায় গেলে সেখানকার নিরাপত্তাকর্মীরা ও জাহাঙ্গীর আলম তাদের কারখানার ভেতর ঢুকতে না দিয়ে অকথ্য ভাষায় গালি দিয়ে তাড়িয়ে দেন।

এদিকে, মঙ্গলবার সকালে বিষয়টি কারখানার অন্যান্য শ্রমিকদের মধ্যে জানাজানি হলে তারা কাজ বন্ধ করে দিয়ে কর্মবিরতি পালন ও বিক্ষোভ শুরু করে। একপর্যায়ে কারখানা ছুটি ঘোষণা করে কর্তৃপক্ষ। পরে মঙ্গলবার রাত ৮টায় ভোক্তভোগী নারী আশুলিয়া থানায় অ্যাডমিন অফিসার জাহাঙ্গীর আলমসহ অজ্ঞাতনামা আরো দু’জনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন।

এ ব্যাপারে বক্তব্য নিতে ইয়াগি বাংলাদেশ গার্মেন্টস লিমিটেডের ম্যানেজিং ডিরেক্টরের ফোনে বারবার কল করেও তাকে পাওয়া যায়নি। এমনকি খুদেবার্তা পাঠিয়েও তার কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

আশুলিয়া থানার ওসি (ইন্টিলিজেন্স) জামাল সিকদার জানান, মঙ্গলবার রাতে ভোক্তভোগীর অভিযোগটি আমলে নিয়ে মামলা নথিভুক্ত করা হয়েছে। এ ঘটনায় আটক জাহাঙ্গীর আলমকে গ্রেফতার দেখিয়ে বুধবার সকালে আদালতে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া ভোক্তভোগী ওই নারীর স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিক্যালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে।

Previous articleগোবিন্দগঞ্জে জামানত হারালেন ৪০ চেয়ারম্যান প্রার্থী
Next articleরাজাপুরে আ’লীগ নেতা সিআইপি লিটনের আপত্তিকর ভিডিও ফাঁস, এলাকায় তোলপাড়
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।