বাংলাদেশ প্রতিবেদক: বগুড়ার বাজারে সয়াবিন তেলসহ নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য কিনতে গিয়ে যখন হিমশিম খাচ্ছেন ক্রেতা, ঠিক সেই মুহূর্তে পেঁয়াজের দাম এক লাফে কেজিতে বেড়েছে ১০ টাকা।

ভারতীয় পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ থাকায় দেশীয় পেঁয়াজের ওপর চাপ বেড়ে যাওয়ায় এমন অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে বলে জানা গেছে।

ব্যবসায়ীরা বলেন, দীর্ঘদিন আমদানি বন্ধ থাকলে দাম আরো বাড়বে। তবে দেশে এ মুহূর্তে পর্যাপ্ত দেশীয় পেঁয়াজ মজুদ থাকার পরও দাম বাড়ার কোনো যৌক্তিক কারণ খুঁজে পাচ্ছেন না ক্রেতারা।

বগুড়ার রাজাবাজার, ফতেহ আলী বাজার ও বকসিবাজার ঘুরে দেখা গেছে, এসব বাজারে ভারতীয় ও দেশীয় পেঁয়াজের সরবরাহ রয়েছে। এরপরেও দাম ঊর্ধ্বমুখী।

জানা যায়, এক সপ্তাহ আগে এসব বাজারে দেশি পেঁয়াজ পাইকারি বিক্রি হয়েছিল ২৫ থেকে ২৮ টাকা কেজি দরে। আর খুচরা বিক্রি হয়েছিল ২৭ থেকে ৩২ টাকায়। তিন দিনের ব্যবধানে সেই পেঁয়াজ খুচরা বাজারে বিক্রি হয়েছে ৪০ টাকা দরে।

বকসি বাজারের পেঁয়াজ ক্রেতা বাদল বলেন, হঠাৎ পেঁয়াজের দাম বেড়ে গেছে। আমরা দুই দিন আগে ৩২ থেকে ৩৫ টাকা কেজিতে পেঁয়াজ কিনেছি। কিন্তু আজকে ৪০ টাকা কেজিতে কিনতে হচ্ছে।

রাজাবাজারের পেঁয়াজ ব্যবসায়ী হান্নান বলেন, হঠাৎ করেই পেঁয়াজের দাম বেড়ে গেছে। দেশি পেঁয়াজ সরবরাহের পাশাপাশি ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি কমে গেছে। তাই দামও বেড়ে গেছে। তাই আবারো আমদানি বাড়লে দাম কমে যাবে।

রাজাবাজার আড়ৎদার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক পরিমল প্রসাদ রাজ বলেন, ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ থাকায় বাজারে দাম বেড়েছে। আমদানি চালু না হলে পেঁয়াজের দাম আরো বাড়ার আশঙ্কা রয়েছে।

Previous article১৬ মে থেকে ১১০ টাকায় ভোজ্যতেল বিক্রি করবে টিসিবি
Next articleবৃষ্টির পানিতে ভাসছে পাকা ধান, শ্রমিক সংকটে বেকায়দায় কৃষকরা!
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।